শ্রীনগর: উপত্যকায় জঙ্গি দমনে ফের সাফল্য। মঙ্গলবার জম্মু কাশ্মীরের বদগামে সেনার গুলিতে নিহত এক জঙ্গি। অপারেশন শুরুর পরেই এলাকা ছেড়ে পালিয়ে গিয়েছে আরও বেশ কয়েকজন জঙ্গি। পলাতক জঙ্গিদের খোঁজে লাগোয়া এলাকাগুলিতে চিরুনি তল্লাশি সেনাবাহিনীর।

সোমবার রাতেই বদগামের চারার-ই-শরিফ এলাকায় জঙ্গিদের আনাগোনার খবর পায় যৌথবাহিনী। সেই মতো সূত্র মারফত পাওয়া খবরের ভিত্তিতে ওই রাতেই অভিযানের জন্য বিশেষ প্রস্তুতি শুরু করে দেন সেনা-জওয়ানরা।

মাঝ রাতেই এলাকায় পৌঁছে যায় নিরাপত্তাবাহিনী। প্রথমেই গোটা এলাকা ঘিরে ফেলা হয়। এদিকে, নিরাপত্তাবাহিনী এলাকায় পৌঁছতেই টের পেয়ে যায় জঙ্গিরা। গোপন ডেরা থেকে অতর্কিতে গুলি চালাতে শুরু করে জঙ্গিরা।

অবস্থান বদলে পাল্টা জবাব দেয় সেনাও। সেনা-জঙ্গি তুমুল গুলির লড়াই শুরু হয়ে যায়। স্থানীয় বাসিন্দাদের যাতে কোনও ক্ষতি না হয় সেব্যাপারে আগাগোড়া দৃষ্টি ছিল সেনা অফিসারদের।

গুলির লড়াইয়ের মাঝে কোনওভাবেই যাতে বাসিন্দাদের কেউ এসে না পড়েন তার জন্য বেশ কয়েকজন জওয়ান তৎপর ছিলেন। জঙ্গিদের একটি ফাঁকা জায়গায় নিয়ে আসাই প্রথম থেকে লক্ষ্য ছিল জওয়ানদের। তবে, সেই কাজ করতে গিয়েই বিপত্তি দেখা দেয়। সুযোগ বুঝে বেশ কয়েকজন জঙ্গি চম্পট দেয়।

তবে জওয়ানদের গুলিতে ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় এক জঙ্গির। নিহত জঙ্গির কাছ থেকে আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধারের পাশাপাশি বেশ কিছু বিস্ফোরক ও কাগজপত্র উদ্ধার করা হয়েছে।

পলাতক জঙ্গিদের খোঁজে লাগোয়া এলাকাগুলিতে চিরুনি তল্লাশি চালাচ্ছে সেনা। সোর্সদের কাজে লাগিয়েও পলাতক জঙ্গিদের ব্যাপারে তথ্য পাওয়ার চেষ্টায় নিরাপত্তাবাহিনী। যদিও ওই জঙ্গিরা স্থানীয় না বাইরে থেকে এসেছিল তা জানা যায়নি। ওই জঙ্গিরা কোন সংগঠনের সঙ্গে যুক্ত সেব্যাপারেও কোনও তথ্য দিতে পারেননি সেনা-অফিসাররা।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।