শ্রীনগর: সাত সকালে উত্তপ্ত হয়ে উঠল কাশ্মীরের মাটি।

সংবাদ সংস্থা এএনআই জানাচ্ছে যে মঙ্গলবার সকালের দিকে কাশ্মীরের অনন্তনাগ জেলায় শুরু হয়েছে জঙ্গি এবং জওয়ানদের গুলির লড়াই।

ওই প্রতিবেদন অনুযায়ী, এদিন ভোর চারতড়ে পর থেকেই জঙ্গিদের সঙ্গে শুরু হয় গুলির লড়াই। তবে ঠিক এলাকায় বা কোন অবস্থায় ওই গুলির লড়াই শুরু হয়েছে তা এখনও স্পষ্ট করে জানানো হয়নি।

সোমবার সকালেই সেনা-জঙ্গির গুলির লড়াইয়ে পরিস্থিতি উত্তপ্ত হয় জম্মু-কাশ্মীরের অনন্তনাগ৷ আর্মি মেজর এই এনকাউন্টার পর্বে শহিদ হন এবং এক জঙ্গিকে খতম করা হয়েছে বলেও জানা গিয়েছে৷ পাশাপাশি, ১৯ রাষ্ট্রীয় রাইফেলসের ২ সেনা এবং এক সেনা আধিকারিক আহত হন এবং জম্মু-কাশ্মীরের ডিজিপি দিলবাগ সিং জানান, এখনও এনকাউন্টার চলছে৷ এই পর্ব শেষ হলে এ সম্পর্কে আরও তথ্য দেওয়া সম্ভবপর হবে বলে তিনি জানান৷

এর আগে গত ১২ জুন অনন্তনাগে সিআরপিএফ-জঙ্গির গুলির লড়াইয়ে ৫ জওয়ান শহিদ হন৷ শহিদ জওয়ানরা হলেন, এএসআই রমেশ কুমার(ঝঝ্ঝর, হরিয়ানা). এএসআই নিরোদ শর্মা (নলবাড়ি, অসম), সিটি সত্যেন্দ্র কুমার (মুজফ্ফরনগর, উত্তরপ্রদেশ), সিটি মহেশ কুমার কুশওয়াহা(গাজিপুর, উত্তপ্রদেশ) এবং সিটি সন্দীপ যাদব (দেওয়াস, মধ্যপ্রদেশ)৷

সেই ঘটনার পরেই কাশ্মীরের পুলওয়ামাতে ফের ঘটে জঙ্গি হামলা। কয়েক ঘণ্টার ব্যবধানে ফের উত্তপ্ত হয়ে ওঠে কাশ্মীর৷ অনন্তনাগের পর পুলওয়ামাতে সেনা কনভয়ের উপর আচমকা হামলা সন্ত্রাসবাদীদের৷ বিস্ফোরণের সাহায্যে কনভয়ের একটি গাড়ি উড়িয়ে দেওয়ার চেষ্টা করা হয়৷ ওই ঘটনায় এক জওয়ানের জখম হওয়ার খবর মিলেছে।