কলকাতা: অভিনয়ের সময়ে অভিনেতারা চরিত্রের মধ্যে ঢুকে পড়েন। নিজের আসল সত্তাটা সরিয়ে রেখে চরিত্রের মতো করে খাপ খাইয়ে নিতে হয় শিল্পীদের। প্রয়োজনে চেহারাতেও বদল আনতে হয়। চরিত্রের প্রয়োজনে কখনও মেদ কমাতে হয়। আবার কখনও মেদ বাড়াতে হয়। অভিনেত্রী এনা সাহাও একটি বিশেষ চরিত্রে অভিনয় করার জন্য মেদ বাড়িয়েছেন। আর তার জন্যই একাধিক বার বডিশেমিং-এর শিকার হতে হয়েছে তাঁকে।

কলকাতা ২৪x৭-এর সঙ্গে একান্ত আড্ডায় এই অভিজ্ঞতা শেয়ার করেন এনা। এনা জানান তিনি এই মুহূর্তে ওজন কমানোর জন্য নিয়মিত ওয়ার্কআউট করছেন। একটি ছবির চরিত্রের প্রয়োজনেই তিনি ওজন বাড়িয়েছিলেন।

এনা বলছেন, আমি বিগত কয়েকদিনে যেখানেই গিয়েছি, সেখানেই মানুষ আমার শরীর নিয়ে বলেছেন। লোকজন দেখে একটাই কথা বলেছেন, তুই প্রচণ্ড মোটা হয়ে গিয়েছিস। কী মোটা লাগছে তোকে। আমি জানি না এটাকে বডি শেমিং বলে কি না। কিন্তু এর জন্য সত্যিই আমার চিন্তা বেড়ে গিয়েছে।

এনা এমনকী এও বলেন, এখন বিষয়টা এমন জায়গায় পৌঁছে গিয়েছে যে আমার আত্মবিশ্বাসও অনেকটা কমে গিয়েছে। আমার ইনস্টাগ্রামে কমেন্ট আসে, মোটা, মোটা হয়ে গিয়েছে। এর জন্য আমার খারাপ লেগেছে। তবে তার মানে এ নয় যে মোটা মেয়েরা সুন্দর না। আসলে মোটা-রোগা দিয়ে সৌন্দর্য বিচার করা যায় না। যে যার মতো করে সুন্দর। তবে আমি এখন রোগা হতে চাই।

প্রসঙ্গত, এই মুহূর্তে এনা একটি ওয়েব সিরিজে কাজ করছেন। কিছু দিন আগেই মুক্তি পেয়েছে তাঁর ছবি ভূত চতুর্দশী। এছাড়াও নিজের ইউটিউব চ্যানেলে ভ্লগিং নিয়ে ব্যস্ত এনা সাহা।