তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: একটি ‘দলছুট’ দলমার দামালকে নিয়ে উত্তাল হল নেট দুনিয়া। জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া ফেসবুক আর হোয়াটসঅ্যাপের সৌজন্যে মুহূর্তের মধ্যে ‘ভাইরাল’ হল সাত সকালে নিজের খেয়ালে রাজপথে ঘুরে বেড়ানো গজরাজের ছবি। যদিও এই দলছুট দলমার দামালের তাণ্ডবে কোন ক্ষয় ক্ষতির খবর নেই। আপন খেয়ালে সে ফিরে গিয়েছে জঙ্গলেই।

আরও পড়ুন- জাতীয় সড়কে বাসের মুখোমুখি সংঘর্ষে নিহত ১ ও আহত ৪০

বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় হাতির এই ছবি ভাইরাল হওয়ার পর খোঁজ নিয়ে জানা গেল, সকাল সাতটা নাগাদ বাঁকুড়ার মেজিয়া থানা এলাকার দুর্লভপুর সংলগ্ন জাতীয় সড়কের উপর দলছুট ওই হাতিটিকে দেখা যায়। প্রতিদিনকার মতো দুর্লভপুর বাজারে ওই সময় আস্তে আস্তে ভিড় বাড়তে শুরু করেছিল।

আরও পড়ুন- সন্ত্রাসবাদ ইস্যুতে ভারতের পাশে দাঁড়িয়ে মোদীকে ফোন পুতিনের

ব্যবসায়ীদের কেউ কেউ দোকানের ঝাঁপ খুলেছেন, কেউ বা খুলবেন। সেই সময় রাস্তার উপর গজরাজের উপস্থিতি টের পেয়েই অনেকেই নিরাপদ দূরত্বে দৌড় লাগিয়েছেন। অতি উৎসাহী কেউ কেউ এই মুহূর্তটিকে মোবাইল ক্যামেরায় বন্দী করার সুযোগ হাত ছাড়া করতে চাননি।

আরও পড়ুন- মাসুদ আজহারের ঘাঁটি ধূলিস্যাৎ হয়েছে এয়ার স্ট্রাইকে, মানলেন পাক মন্ত্রী

স্বপন কুমার ঘোষ নামে একজন ফেসবুকে লেখেন, সাত সকালে আমার বাড়ির সামনে গজরাজ। এভাবেই সারা দিনে এলাকায় ঘুরে বেড়ানো হাতির ছবি ঘুরে বেড়িয়েছে ‘সোশ্যাল মিডিয়া’র পাতায়। পরে অবশ্য কারোর কোনও ক্ষতি না করেই আপন খেয়ালে জঙ্গলেই ফিরে গিয়েছে গজরাজ, এমনটাই খবর স্থানীয় সূত্রে।

আরও পড়ুন- জঙ্গি নিকেশের প্রমাণ কই? অতিসক্রিয় ‘সোশ্যাল মিডিয়া’কে সচ্চা জবাব বায়ুসেনার

বনতর সূত্রে খবর, এই মুহূর্তে গঙ্গাজলঘাটিতে দুটি, বড়জোড়ায় ৩০-৪০ টি, খাগ-বৃন্দাবনপুরে চারটি ও বাঁকাদহ রেঞ্জে তিনটি হাতি রয়েছে। সংশ্লিষ্ট এলাকার জনসাধারণকে সতর্ক থাকতে বনদফতরের পক্ষ আবেদন জানানো হয়েছে।