কলকাতা: মানচিত্র বিতর্কে দায় এড়িয়ে গেল রাজ্য সরকার৷ বৃহস্পতিবার শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় সাফ জানালেন, এর দায় নিতে হবে রাজ্য সরকারকেই৷ এর জন্য মধ্যশিক্ষা পর্ষদকে কোনওভাবেই দায়ী করা যায় না বলে দাবি করেছেন তিনি৷ একই সঙ্গে শিক্ষামন্ত্রী এর পিছনে বিজেপির চক্রান্ত রয়েছে বলেও অভিযোগ তুলেছেন৷

আরও পড়ুন: ম্যাপে দেশের বাইরে কাশ্মীর ও অরুণাচল, তৃণমূলকে দুষল বিজেপি

পশ্চিমবঙ্গের একাধিক জেলায় মাধ্যমিকের টেস্ট পরীক্ষায় ভূগোলের প্রশ্নপত্র নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়েছে৷প্রশ্নপত্রে দেওয়া ভারতের ম্যাপ অসম্পূর্ণ বলে অভিযোগ ওঠে৷জম্মু ও কাশ্মীরের অংশটা কিছুটা বিকৃত। পাক অধিকৃত কাশ্মীরের অংশটি বাদ দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ৷

আর এই অভিযোগ সামনে আসতে হইচই পড়ে যায় গোটা রাজ্যে৷ স্বাভাবিকভাবে আসরে নেমে পড়ে বিজেপি৷ সরকারের তোপ দাগা হয় গেরুয়া শিবিরের তরফে৷ জেলা বিজেপি টিচার্স সেলের তরফে বলা হয়, বেশিরভাগ স্কুলগুলিতে সেকেন্ডারি টিচার্স ফোরামের তরফে প্রশ্নপত্র বিলি করা হয়েছে। ম্যাপ পয়েন্টিংয়ের জন্য যে ম্যাপ সরবরাহ করা হয়েছে তাতে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে, ভারতীয় মানচিত্রকে বিকৃতভাবে ব্যবহার করা হয়েছে। এই বিষয়ে কেন্দ্রীয় মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকের কাছে চিঠি পাঠানো হবে বলে জানায় গেরুয়া শিবির৷

আরও পড়ুন: যে সাতটি জায়গা আপনি গুগল ম্যাপে খুঁজলেও পাবেন না!

পরে শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায় জানান, এই ম্যাপের দায়িত্ব নেবে না পর্ষদ৷ কারণ, এটা স্কুলের তৈরি করা প্রশ্নপত্রের সঙ্গে ছিল৷ নিজের বক্তব্যের স্বপক্ষে দু’টি ম্যাপও এদিন দেখান পার্থ চট্টোপাধ্যায়৷ তিনি জানান, যে ম্যাপ নিয়ে বিতর্ক, তা মধ্যশিক্ষা পর্ষদ তৈরি করে না৷ মধ্যশিক্ষা পর্ষদের ম্যাপে জলছবি থাকে৷ এখানে সেটা নেই বলেই তৈরি করেন তিনি৷ তাই কারা এই কাজ করল এর সঠিক তদন্তও করা উচিত বলেও তিনি মনে করেন৷ শিক্ষামন্ত্রী জানান, মধ্যশিক্ষা পর্ষদকে তিনি এ নিয়ে প্রশাসনিক তদন্ত করার কথা বলা হচ্ছে৷ প্রয়োজনে এফআইআর করে তদন্ত করার কথাও তিনি জানান৷

আরও পড়ুন: বিমল গুরুংয়ের গোপন ডেরার রুট ম্যাপ ফাঁস, কোথায় লুকিয়ে পাহাড়ের স্বঘোষিত ‘মুখ্যমন্ত্রী’?

তার পরই শিক্ষামন্ত্রী তোপ দাগেন বিজেপির উদ্দেশ্যে৷ জানান, পশ্চিমবঙ্গে অশান্তি ছড়ানোর জন্য এই কাজ করা হচ্ছে৷ যাঁরা এই ম্যাপ দেখাচ্ছেন, তাঁরা কোথা থেকে এই ম্যাপ পেলেন, তাও খতিয়ে দেখা উচিত বলে শিক্ষামন্ত্রীর মন্তব্য৷ তাঁর সাফ কথা, এসব বিজেপির চক্রান্ত৷

এদিকে এর পর ফের সাংবাদিক বৈঠক করা হয় বিজেপির তরফে৷ তাদের তরফে রাজু বন্দ্যোপাধ্যায় জানান, প্রকৃত দোষীদের ধরার বদলে বিজেপিকে হুমকি দিচ্ছেন শিক্ষামন্ত্রী৷

আরও পড়ুন: ম্যাপে নেই তিব্বত, তাইওয়ান! নিজেদের মানচিত্র দেখে ক্ষেপে উঠল চিন