নয়াদিল্লি: বুথে না গিয়ে এবার মিলতে পারে ভোট দেওয়ার সুযোগ। নাগরিকদের সুবিধার্থে এবার এমনই উদ্যোগ নিচ্ছে নির্বাচন কমিশন। চেন্নাই আইআইটি-র সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধে ভোটদান পদ্ধতি আরও বেশি মসৃণ করতে শুরু হয়েছে তৎপরতা। ভোটের দিন যাঁরা ব্যক্তিগত বা পেশাগত কারণে নিজের নির্বাচনী কেন্দ্র থেকে বহু দূরে থাকবেন তাঁরাও নয়া এই ব্যবস্থা কার্যকর হলে পছন্দের প্রার্থীকে বুথে না গিয়েও ভোট দিতে পারবেন।

ভোটদান পদ্ধতিতে বড়সড় বদল আনার ভাবনা নির্বাচন কমিশনের। সেই লক্ষ্যেই এবার আইআইটি চেন্নাইয়ের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁছেধে কমিশন। নতুন প্রযুক্তির মাধ্যমে বুথে না গিয়েও এবার মিলতে পারে ভোটদানের সুযোগ। মুখ্য নির্বাচনী কমিশনার সন্দীপ সাক্সেনা জানিয়েছেন, নয়া এই ভাবনা মূল দুটি পদ্ধতির উপর ভর করেই কার্যকর করা হতে পারে।

তবে নয়া এই প্রযুক্তি কার্যকর হলে নাগরিকরা বাড়িতে বসে ভোট দিতে পারবেন না। নির্দিষ্ট একটি জায়গাতে গিয়েই তাঁকে ভোট দিতে হবে। মুখ্য নির্বাচন কমিশনার আরও জানিয়েছেন, নির্দিষ্ট ওই কেন্দ্রে ভোটার যাওয়ার পর তাঁর পরিচয় যাচাই করা হবে। তারপর সংশ্লিষ্ট ভোটারের জন্য ই-ব্যালট পেপার দেওয়া হবে।

ই-ব্যালট পেপারে কোনও ভোটার ভোট দিলে তাঁর ভোটটি সুরক্ষিতভাবে নথিভুক্ত হবে। একইসঙ্গে ইন্টারনেট ব্যাবস্থার মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট ভোটারের জন্য একটি ব্লক-চেন হ্যাশট্যাগ দেওয়া হবে। তারপর ভোটারের দেওয়া ভোট সংশ্লিষ্ঠ প্রার্থীর নামেই জমা হবে। ভোটদানের নযা এই পদ্ধতি কার্যকরা হলে তা খুবই সুরক্ষিত থাকবে বলেই মত নির্বাচনী আধিকারিকদের।

উদাহরণস্বরূপ মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিক সন্দীপ সাক্সেনা সংবাদসংস্থা পিটিআই-কে জানিয়েছেন, ধরা যাক চেন্নাইয়ের এক ভোটার তাঁর নিজের কেন্দ্র লোকসভা ভোটের দিন দিল্লিতে রয়েছেন। তিনি যদি ভোট দিতে চান তবে তাঁকে আগে থেকে নির্বাচন কমিশনের নির্দিষ্ট করে দেওয়া দিল্লির কোনও ঠিকানায় যেতে হবে।

পছন্দের প্রার্থীকে সেখান থেকেই তিনি ভোট দিতে পারবেন। ভোটদানের নতুন এই ব্যবস্থা কার্যকর হলে ভোটাররা আগে থেকেই তাঁদের কেন্দ্রের রিটার্নিং অফিসারের কাছে দূরে থেকেও ভোট দেওয়ার জন্য আবেদন করতে পারেন।