স্টাফ রিপোর্টার, রায়গঞ্জ: আক্রান্ত রায়গঞ্জের সিপিএম প্রার্থী মহম্মদ সেলিম। তাঁর গাড়িতে হামলা করা হয়েছে বলে অভিযোগ। রিগিংয়ের প্রতিবাদ করাতেই এই হামলা হয় বলে অভিযোগ সেলিমের।

সেলিম জানান, ইসলামপুরের নয়াপাড়া টেরিংবাড়ি বুথে সকাল থেকে বুথ দখল করার খবর পেয়ে বুথ কেন্দ্রে যান তিনি। সেখানে গিয়ে তিনি দেখেন কোনও কেন্দ্রীয় বাহিনী নেই৷ শাসকদলের দুষ্কৃতীরা দাঁড়িয়ে থেকে ভোট পরিচালনা করছে বলে অভিযোগ করেছেন এই সিপিএম প্রার্থী৷

তিনি বলেন, “আমি যে বুথে ঢুকেছিলাম, সেখানে ভোট করানো হচ্ছিল। বুথের বাইরে ছিল মস্তানরা। বোমা, বন্দুক নিয়ে দাঁড়িয়ে ছিল। পোলিং এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়েছে। একটা মস্তানকেও ধরতে পারল না। আমি বুথের ভিতরে ছিলাম বলে হামলা চালানো হয়েছে।

ওই বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী ছিল না। প্রিসাইডিং অফিসারকে ভয় দেখাচ্ছে। আমি যেখানে দাঁড়িয়ে আছি তাঁর ১০০ মিটারের মধ্যে মস্তানরা অস্ত্র ও বোমা নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে। যে বুথগুলি তৃণমূল দখল করবে সেই বুথে কেন্দ্রীয় বাহিনী দেওয়া হয়নি। আমাদের ভোটারদের ভোট দিতে দিচ্ছে না। ১০০ মিটারের মধ্যে আটকে দিচ্ছে।

সেলিম আরও বলেন, তিনি-ই শাসকদলের এক দুষ্কৃতীকে হাতেনাতে ধরেন। তাঁর গাড়িটি দূরে দাঁড় করানো ছিল। দুষ্কৃতীরা তখন তাঁর গাড়িতে ভাঙচুর করে। সেই সময় পুলিশের দেখা মেলেনি৷ এমনকি কমিশনে অভিযোগ জানিয়েও কোনও লাভ হয়নি দাবি তাঁর৷যদিও কমিশনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, সেলিমের গাড়ি ভাঙচুরের ঘটনায় জেলা প্রশাসনের থেকে রিপোর্ট তলব করা হয়েছে৷তাদের দাবি, গাড়ির কোনও ক্ষয়ক্ষতি হয়নি৷