স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: খারাপ খাবার বিক্রির অভিযোগ পেয়ে দক্ষিণ দমদম পৌরসভার নামকরা রেস্তোরাঁয় আচমকা অভিযান চালিয়ে চক্ষু চড়কগাছ পুলিশের৷ রেস্তোরাঁর ফ্রিজের দরজা খুলতেই বোটকা গন্ধে সংজ্ঞা হারানোর অবস্থা এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চের এক পুলিশ অফিসারের৷ নাকে রুমাল চাপা দিয়ে ফ্রিজে উঁকি মারতেই দেখলেন পনীরের উপর ছত্রাক পড়ে গিয়েছে৷ রান্নার জন্য রেখে দেওয়া কাঁচা মাংস আধপচা৷ গ্লাস ভরা ফ্রুট জুসে মরে উল্টে রয়েছে আরশোলার মৃতদেহ৷

শুক্রবার সকালে দমদম মতিঝিল রোডের ‘ইন্ডিয়া লর্ড’ রেস্তোরাঁয় যৌথভাবে অভিযান চালায় রাজ্য পুলিশের এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চ (ইবি) এবং দক্ষিণ দমদম পৌরসভা৷ আচমকা অভিযান চালিয়ে প্রচুর খাদ্যসামগ্রী বাজেয়াপ্ত করে পুলিশ৷ যার বেশিরভাগই নষ্ট হয়ে গিয়েছে৷ রেস্তোরাঁ কর্মীরা প্রথমে কথা ঘুরানোর চেষ্টা করলেও পরে তারা স্বীকার করে এই পচা-বাসি খাবারই রান্না করে ক্রেতাদের দেওয়া হত৷ পচা-বাসি খাবারগুলি পরীক্ষার জন্য ল্যাবরেটরিতে পাঠানো হয়েছে৷ নিম্নমানের খাবার বিক্রির অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছে রেস্তোরাঁর ম্যানেজার প্রদীপ রায়কে৷ মালিক বরুণ চৌধুরী পলাতক৷ খাদ্যমন্ত্রী জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক বলেন, ‘‘দমদম পৌরসভাকে বলেছি এই সব রেস্তোরাঁগুলির বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নিতে৷’’

শুধু নিম্নমানের খাবারই নয়, এই রেস্তোরাঁয় বেআইনিভাবে রান্নার গ্যাসের ব্যবহার করা হচ্ছিল৷ ইবি অফিসারেরা এদিন রেস্তোরাঁর কিচেনে হানা দিয়ে দেখেন, বানিজ্যিক গ্যাসের বদলে ঘরোয়া রান্নার কাজে ব্যবহৃত গ্যাস দিয়ে রান্না হচ্ছে৷ ছ’টি গ্যাস সিলিন্ডার থেকে পাইপ বের করে এক জায়গায় এনে রীতিমতো গ্যাস ব্যাঙ্ক তৈরি করা হয়েছে৷ সেই গ্যাস ব্যাঙ্কের মাধ্যমেই রান্না হত এই রেস্তোরাঁয়৷ অভিযুক্ত প্রদীপ এবং বরুণের বিরুদ্ধে বেআইনি ভাবে গ্যাস ব্যবহারের অভিযোগও দায়ের হয়েছে৷

বেশ কিছুদিন ধরে ইন্ডিয়া লর্ড রেস্তোরাঁর বিরুদ্ধে নিম্নমানের খাবার বিক্রির অভিযোগ আসছিল দক্ষিণ দমদম পৌরসভার কাছে৷ পৌরসভার তরফে বিষয়টি রাজ্য এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চকে জানানো হয়৷ সেইমতো এদিন সকালে ২০-২৫ জনের একটি দল আচমকা হানা দেয় রেস্তোরাঁয়৷ সবেমাত্র রেস্তোরাঁটি খোলা হয়েছিল৷ রান্নাবান্না শুরু করার তোড়জোড় চলছিল৷ আচমকা একদল পুলিশ দেখে থতমত খেয়ে যান রেস্তোরাঁ কর্মীরা৷ হাতেনাতেই অভিযোগের প্রমাণ পেয়ে যান তাঁরা৷ নিম্নমানের খাবার বিক্রি করা বন্ধে এরকম অভিযান আরও চলবে বলে জানিয়েছে এনফোর্সমেন্ট ব্রাঞ্চ৷

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও