গরমকাল মানেই তার সঙ্গে আসে হাজার রোগ। এর ফলে আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাও প্রভাবিত হয় ধীরে ধীরে। হজম ও ত্বকের নানা সমস্যাসহ গরমে লু লাগার একটা ভয় থেকে যায়। আবার ফ্লু- এর দাপটও রয়েছে। এই সময়ে তা অস্বীকার করা যায় না। তাই ত্বক ও শরীর শুকিয়ে যায় তাড়াতাড়ি এসবের ফলে। কিন্তু কিছু সহজ উপায় তা আটকানো যায়। এইসব সমস্যাগুলো থেকে বাঁচতে গেলে নিচের টিপসগুলো পড়তে হবে।

১. আপনার শরীরে পর্যাপ্ত জল না থাকলে আপনার ত্বক ও শরীর শুকিয়ে যাবে। ৯০% রোগের সঙ্গে লড়াই করার অস্ত্রই হলো সুস্থতা যা এই জল পান করা থেকে আসে। শরীরের ফাইবারগুলো দ্বারা আমাদের কোলনে টেনে নেয় এই জল। ফলে নরম মলের মাধ্যমে সেটা বেরিয়ে যায় শরীর থেকে। ৮-১০ গ্লাস জল পান করুন গরমে রোজ।

২. গরমে ক্যাফেইন যতটা পারবেন কম পান করবেন। কফি, চাতে থাকা ক্যাফেইন আমাদের পাচনতন্ত্রকে প্রভাবিত করে খুব। ফলে আমাদের দেহের হজম শক্তি কমে যায়। এর থেকেই পরে আস্তে আস্তে গ্যাস, অম্বলের সমস্যা দেখা দেয়। এমনকি আলসার পর্যন্ত হতে পারে এর থেকে।

আরো পোস্ট-তরুণদের মধ্যে কোলন ক্যান্সার বাড়ছে!

৩. ফল, সব্জি খেলে শরীরে পর্যাপ্ত ফাইবার ঢোকে। এর উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন পুষ্টি উপাদানগুলো থেকে শরীর কাজ করার শক্তি পায়। পাচনতন্ত্র ভালো থাকে এর ফলে।

৪. ঘাম আমাদের শরীর থেকে বের করা জরুরি। এর মাধ্যমে আসলে নোংরা ও ময়লা বেরিয়ে যায় আমাদের শরীর থেকে অনেকটাই। তাই শরীর চর্চা ভুললে চলবে না। শরীরকে ডিটক্সিফাই করতেও ভালো কাজ দেয় ব্যায়াম। তাই নিয়মিতভাবে করুন এটি। সকালবেলা করলেই ভালো মুক্ত বাতাসে।

৫. গরমে যতটা পারবেন রোদ থেকে বহু হাত দূরে রাখবেন নিজেকে। ছাতা, সানগ্লাস ব্যবহার করবেন। জলের ঝাপটা দেবেন মুখে মাঝে মাঝেই। তিন ঘন্টার বেশি রোদে না থাকাই ভালো এই সময়ে। নুন-চিনির জল রাখবেন সঙ্গে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.