কলকাতা: শুক্রবার থেকেই যাত্রী পরিবহণ শুরু হয়ে গেল ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রোয়। এদিন সকাল ৮টা থেকে শুরু হয় পরিষেবা। মেট্রোরেল সূত্রে জানা গিয়েছে, আপাতত সকাল ৮টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত পরিষেবা মিলবে। আপাতত সল্টলেক সেক্টর ফাইভ থেকে সল্টলেক যুবভারতী স্টেডিয়াম পর্যন্ত মেট্রো চলছে। পরে পর্যায়ক্রমে এই রুট আরও বাড়বে।

বৃহস্পতিবার ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের উদ্বোধন করেন রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল। মেট্রো পরিষেবার উদ্বোধনের পর রেলমন্ত্রী জানান, এবছরের দুর্গাপুজোর আগেই ফুলবাগান পর্যন্ত মেট্রো পরিষেবাও চালু হয়ে যাবে। প্রাথমিকভাবে সল্টলেকের সেক্টর ফাইভ থেকে যুবভারতী স্টেডিয়াম পর্যন্ত চলছে মেট্রো। প্রথম পর্যায়ে করুণাময়ী-সহ ছয়টি স্টেশনে দাঁড়াবে মেট্রো।

সল্টলেক সেক্টর ফাইভ থেকে সল্টলেক স্টেডিয়াম পর্যন্ত দীর্ঘ ৪.৮ কিমি রেলপথে রয়েছে ৬টি স্টেশন। প্রথম পর্যায়ে এই রুটে ৫টি মেট্রো চালানো হচ্ছে। ৪.৮ কিমি পথ মেট্রোয় যেতে লাগছে ১৪ মিনিট। আপাতত ২০ মিনিট অন্তর মিলছে মেট্রো। প্রতি স্টেশনে ২০ সেকেন্ড করে দাঁড়াচ্ছে মেট্রো। ৫ ও ১০ টাকার টিকিট কেটে মেট্রোয় চলাচল করতে পারছেন যাত্রীরা।

আরও পড়ুন – ‘আত্মত্যাগ সব সময় মনে থাকবে’, শহিদ জওয়ানদের স্মরণ মুখ্যমন্ত্রী মমতার

ইস্ট-ওয়েস্ট মেট্রো প্রকল্পের শুরুতে জমি নিয়ে একাধিক জটিলতা তৈরি হয়। শেষমেশ রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের সহযোগিতাতেই যাবতীয় জটিলতার সমাধান হয়। মেট্রো প্রকল্পের সমস্যা নিয়ে পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের সঙ্গে একাধিকবার বৈঠক করেন মেট্রোর কর্তারা। দফায় দফায় সেই বৈঠকের জেরেই কাটে জটিলতা।

বৃহস্পতিবার মেট্রো প্রকল্পের উদ্বোধনে রেলমন্ত্রী পীযূষ গোয়েল ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়-সহ মেট্রো রেলের পদস্থ কর্তারা। অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ পেয়েও যাননি স্থানীয় সাংসদ কাকলি ঘোষদস্তিদার, রাজ্যের মন্ত্রী সুজিত বসু ও বিধাননগরের মেয়র কৃষ্ণা চক্রবর্তী। অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণপত্রে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম না থাকায় অনুষ্ঠান বয়কট করেন রাজ্যের মন্ত্রী ও তৃণমূল সাংসদ-বিধায়করা।