পানাজি: আইএসএল অভিষেক মরশুমটা দ্রুত ভুলতে চাইবে এসসি ইস্টবেঙ্গল। লিগ টেবিলে নবমস্থানে, জোড়া ডার্বিতে হার। প্রথম আইএসএল থেকে শতাব্দীপ্রাচীন ক্লাবের তাহলে কী কিছুই পাওয়ার নেই? ইস্টবেঙ্গল কোচ রবি ফাওলার কিন্তু তেমনটা মানতে রাজি নন। লিভারপুল কিংবদন্তি খারাপ মরশুমেও তাঁর দলের মধ্যে অনেক ইতিবাচক বিষয় খুঁজে পেয়েছেন। আর সেই ইতিবাচকতা দিয়েই মরশুমের শেষটা অন্তত জয় দিয়ে করতে চাইছেন তিনি।

ওডিশার বিরুদ্ধে লিগের শেষ ম্যাচে মাঠে নামার আগেরদিন ভার্চুয়াল সাংবাদিক সম্মেলনে মুখোমুখি হয়েছিলেন ফাওলার। চার ম্যাচ সাসপেনশনের পর লিগের শেষ ম্যাচে ফের বেঞ্চে বসার সুযোগ থাকছে তাঁর কাছে। সাংবাদিক সম্মেলনে ফাওলার জানালেন, ‘আমরা সকলেই পেশাদার। হতে পারে আজ আমাদের লিগের শেষ ম্যাচ। কিন্তু অনেক খেলা বাকি রয়েছে। আমি নিশ্চিতভাবে বলতে চাই ফুটবলাররা মাঠে সঠিক মনোভাব নিয়েই নামবে।

ফুটবলারদের প্রতি আমার সহজ বার্তা তোমরা ভুল কম কর। যেগুলোর মূল্য আমাদের চোকাতে হয়েছে। আমার মনে হয় না টিভিতে চোখ রাখা হাজার-হাজার সমর্থকের সামনে ছেলেরা নিজেদেরকে খাটো করবে বলে। আসল কথা ম্যাচটা উপভোগ করতে হবে।’ ১৯ ম্যাচে ১৭ পয়েন্ট নিয়ে আপাতত লিগ টেবিলে নয় নম্বরে ফাওলারের ইস্টবেঙ্গল। শেষ ম্যাচে চার বা তার বেশি ব্যবধানে জয় একধাপ উপরে তুলে নিয়ে যেতে পারে তাদের। এমন সময় মরশুমে দলের সামগ্রিক পারফরম্যান্স নিয়ে বলতে গিয়ে ফাওলার জানান, ‘আমার মনে হয় অনেক ইতিবাচক বিষয় রয়েছে। মাত্র দু’সপ্তাহের প্রস্তুতিতে আমরা ভাল লড়াই করেছি। আমরা কিছু দুর্দান্ত পারফরম্যান্স করেছি যেগুলো আরও ভাল হতে পারত।’

কার্ড সমস্যা থেকে বেরিয়ে ওডিশার বিরুদ্ধে মাঠে নামতে সমস্যা নেই ড্যানি ফক্স এবং জ্যাক ম্যাঘোমার। কিন্তু কার্ড সমস্যায় পাওয়া যাবে না স্কট নেভিল কিংবা রাজু গায়কোয়াড়কে। প্রতিপক্ষ ওডিশা আবার গত ম্যাচে ১-৬ গোলে বিধ্বস্ত হয়েছে মুম্বই সিটি এফসি’র কাছে। প্রতিপক্ষ নিয়ে বলতে গিয়ে ফাওলার জানিয়েছেন, ‘গত ম্যাচের ফলাফল ওদের জন্য একটা আঘাত। তবে এই ম্যাচে ভুল শুধরে নিতে চাইবে। প্রত্যেক ফুটবলার লড়াই ছুঁড়ে দেবে এবং গতম্যাচের ভুলগুলো ঠিক করতে চাইবে।’

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.