কলকাতা: দলের খেলায় সচরাচর হতাশ হন না তিনি। ফলাফল যাই হোক না কেন, দলের ফুটবলারদের পারফরম্যান্সের তারিফ করে ড্যামেজ কন্ট্রোলের রাস্তায় হাঁটা ইস্টবেঙ্গল কোচ আলেজান্দ্রো মেনেন্দেজের বরাবরের স্বভাব। ২০১৯-২০ আই লিগের প্রথম ম্যাচে পয়েন্ট খোয়াতে হলেও বদলালো না সেই চিত্র। দলের খেলায় খুশি বলেই জানালেন লাল-হলুদের স্প্যানিশ বস।

৩৩ মিনিটে পিছিয়ে পড়ে দ্বিতীয়ার্ধে এসপাদা মার্টিনের গোলে বুধবার অভিযান শুরুর ম্যাচে সমতা ফেরাতে সক্ষম হয় ইস্টবেঙ্গল। ম্যাচে আগাগোড়া দাপট নিয়ে খেলেও এক পয়েন্ট নিয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয় ইস্টবেঙ্গলকে। ম্যাচ শেষে সাংবাদিক সম্মেলনে স্প্যানিশ বস বলেন, ‘আমি দলের খেলায় যথেষ্ট সন্তুষ্ট। আমার মতে গুরুত্বের বিচারে এটা আমাদের কাছে একটা বড় ম্যাচ ছিল। ছেলেরা সবটা দিয়ে চেষ্টা করেছে। ম্যাচে বল পজেশন আমাদের দখলেই ছিল একইসঙ্গে প্রচুর সুযোগও তৈরি করেছি আমরা। ওরা একমাত্র সুযোগ থেকেই গোল করে গিয়েছে।’

লাল-হলুদের স্প্যানিশ বস আরও বলেন, ‘আমরা ধৈর্য্য ধরেছি এবং নিজেদের স্টাইলে খেলার চেষ্টা করে গিয়েছি। আমরা ড্র করেছি ঠিকই কিন্তু আমার মনে হয় আমাদের জেতা উচিৎ ছিল। ওরা গোটা ম্যাচ দুরন্ত রক্ষণ সামলেছে।’ প্রথমার্ধে বল দখলে থাকলেও ইতিবাচক সুযোগ আসছিল না। কিন্তু দ্বিতীয়ার্ধে কোন পেপটকে বদলে গেল দলের খেলা? উত্তরে আলেজান্দ্রো বলেন, ‘দ্বিতীয়ার্ধে ছেলেদের মনোসংযোগ বাড়াতে বলেছিলাম। আর বলেছিলাম এভাবে খেলতে থাকলে গোল আসা সময়ের অপেক্ষা।’

পাশাপাশি ক্রিজোর গোলের সময় রিয়াল কাশ্মীর বক্সে আরও সজাগ থাকা উচিৎ ছিল বলে মনে করেন আলেজান্দ্রো। ডিফেন্সের মুহূর্তের ভুলই প্রথম ম্যাচে পয়েন্ট কাড়ল বলে মত স্প্যানিশ বসের। জুয়ানদের হেড স্যারের কথায়, ‘আমরা জানি ক্রিজো একজন ভালোমানের স্ট্রাইকার। আমার মনে হয় ওটাই সারা ম্যাচে আমাদের একমাত্র ভুল ছিল। মার্কিং আরেকটু কড়া হওয়া উচিৎ ছিল এবং একইসঙ্গে আমাদের আরও সজাগ থাকা উচিৎ ছিল।’