লন্ডন:  সাইবার হামলাকারীরা মহাকাশের কক্ষপথ পরিক্রমণকারী উপগ্রহে হামলা করতে পারে। কিংবা ভূপৃষ্ঠের উপগ্রহ নিয়ন্ত্রণ কেন্দ্রও তাদের হামলার শিকার হতে পারে বলে চাঞ্চল্যকর এই আশংকা প্রকাশ করেছে লন্ডনের ব্রিটিশ থিংকট্যাংক চ্যাথাম হাউজ। তাঁর মতে, গত বছরের সাইবার হামলায় ৩০ কোটি ডিজিটাল তথ্য ফাঁস হওয়া এবং ৯৭ কোটি ৩০ লাখ ডলার সমপরিমাণ অর্থ হাতিয়ে নেওয়া হয়। আর সেই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে এই আশঙ্কা প্রকাশ করেন হাউজ।

চ্যাথাম হাউজ বলছে, এখনও পর্যন্ত সরকার এবং ব্যবসায়ীরা হ্যাকারদের এই সাইবার হামলা ঠেকানোর কোনও কার্যকর পদক্ষেপ নিচ্ছে না। সাইবার হামলা চালিয়ে উপগ্রহসহ অন্যান্য মহাকাশ পরিকাঠামো দুষ্ট বা অসৎ উদ্দেশ্যে প্রণোদিত ব্যবহার ঠেকানোর মতো কোনও পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে না বলে মনে করছে চ্যাথাম হাউজ।

চ্যাথাম হাউজের নতুন প্রতিবেদনে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলা হয়েছে, মহাকাশ যান বা উপগ্রহে এমন হামলা হলে তার পরিণামে বিপর্যয় দেখা দেবে বিশ্বব্যাপী। এই জাতীয় হামলার মাধ্যমে হ্যাকাররা বাণিজ্যের ক্ষতি করতে তো পারবেই এমনকি জঙ্গিদের হাতে তুলে দিতে পারবে অস্ত্র।  বিমান চলাচল, যোগাযোগ এবং প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাসহ বিশ্বের অনেক গুরুত্বপূর্ণ পরিকাঠামোকে মহাকাশের যন্ত্রপাতির ওপর একান্তভাবে নির্ভর করতে হয়।

অথচ এই গুলো অরক্ষণীয় অবস্থায় রয়েছে। সাইবার হামলা ঠেকানোর ক্ষেত্রে অন্যতম বিশাল চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠছে প্রযুক্তির অবিশ্বাস্য উন্নয়ন। উন্নয়নের এ গতি এতই দ্রুত যে এর সঙ্গে তাল রাখতে যেয়ে হাঁপিয়ে পড়ছেন বিশেষজ্ঞরা। এ ছাড়া, এ জাতীয় হামলা ঠেকানোর পদক্ষেপ সমন্বয়ের কোনো আন্তর্জাতিক সংস্থাও নেই বলেও চ্যাথাম হাউজের প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।