নয়াদিল্লি: নতুন অর্থবছর 2021-22 শুরু হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে কেন্দ্রীয় সরকার বেশ কয়েকটি অর্থনৈতিক পরিবর্তন বাস্তবায়ন করেছে।কিছু জিনিসের দাম কমে আসলেও কিছু জিনিসের দাম বেড়েছে।যদি আপনিও আর্থিক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়ে থাকেন, এবং আপনার যদি কখনও মুদ্রা সংগ্রহের নেশা থেকে থাকে তবে আপনি ঘরে বসেই কোটিপতি হতে পারেন। আজ আমরা আপনাকে এমন একটি মুদ্রা সম্পর্কে বলব, যা আপনাকে এক ধাক্কায় কোটি কোটি টাকা উপার্জন করার সুযোগ করে দেবে।

যে মুদ্রা কোটি টাকা উপার্জনের সুযোগ করে দেবে সেই মুদ্রা নিশ্চই কোনো সাধারণ মুদ্রা হবে না। তার নিশ্চয়ই কিছু বিশেষত্ব আছে। চলুন জেনে নেওয়া যাক সেগুলো –

এই মুদ্রাটি ব্রিটিশ শাসনের সময়ের হওয়া উচিত অর্থাৎ মুদ্রাটি 1885 সালে নির্মিত হতে হবে। আপনার যদি এমন ১ টাকার মুদ্রা থাকে, যা কিনা 1885-এ মুদ্রিত হয়েছে, তবে আপনি সেই মুদ্রা অনলাইন নিলামের মাধ্যমে প্রচুর উপার্জন করতে পারবেন। অনলাইন বিক্রি করে আপনি 9 কোটি 99 লক্ষ টাকা পর্যন্ত জিততে পারবেন।চলুন জেনে নেওয়া যাক এই ব্রিটিশ আমলে তৈরী এই মুদ্রার বিক্রি বা নিলাম কোথায় করবেন।

পুরানো কয়েন বিক্রি করতে, কিংবা পুরানো কয়েন কেনার জন্য অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ওএলএক্স-এ যেতে হবে।প্রথমত, আপনাকে ওএলএক্স-এ আপনার লগইন আইডি তৈরি করেন, এর পরে নিলামের জন্য 1 টাকার ওই বিশেষ মুদ্রার একটি ছবি তুলে সেখানে পোস্ট করতে হবে। পাশাপাশি এই মুদ্রার বিক্রয়মূল্যও আপনাকে পোস্ট করতে হবে।এখানে আপনাকে শুধুমাত্র এই কাজটি করতে হবে। প্রচুর লোক আছে যারা নানা পুরনো জিনিস সংরক্ষণের জন্যে কিনে রাখেন। কিছু লোক পুরানো কয়েন খুঁজতে থাকেন। এই জাতীয় কয়েন বেশ ভালো টাকা দিয়ে কিনে থাকেন অনেকে। এইভাবে আপনিও বেশ ভালো উপার্জন করতে পারবেন।

এছাড়াও আপনার কাছে এক টাকা, পাঁচ টাকা ও দশ টাকার কয়েন থাকে সেক্ষেত্রে লাখপতি হওার সুযোগ হাতের মুঠোয় ৷টাকা পয়সা রোজগারের অন্যতম মাধ্যম হল ই-কমার্স ওয়েবসাইট তার মাধ্যমে ব্যবসা বাণিজ্য করা যেতে পারে ৷ যদি কারো কাছে মাতা বৈষ্ণদেবীর ছবি যুক্ত ৫ টাকার ১০ টাকার কয়েন যা ২০০২ সালে লঞ্চ করা হয়েছে ৷ এই কয়েনগুলি অনলাইন ওয়েবসাইটে নিলাম করে উপার্জন করতে পারবেন ৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.