নয়াদিল্লি: খুব তাড়াতাড়ি ভারত সরকারের পক্ষ ই-পাসপোর্ট ইস্যু করা হতে চলেছে৷ এই ই-পাসপোর্টে থাকছে অত্যাধুনিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা৷ যার প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে রাখা থাকবে একটি মাইক্রো চিপ৷ আগেই মোদী সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিল এই ধরণের পাসপোর্ট আসতে চলেছে৷ এবার প্রকাশ পেল তার নিরাপত্তা সংক্রান্ত বৈশিষ্ট্যগুলো৷

ই-পাসপোর্টের নিরাপত্তা সংক্রান্ত সুবিধা

১৷ যে চিপ লাগানো থাকবে ই-পাসপোর্টে, তাতে থাকবে গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্যের খুঁটিনাটি৷ এই চিপ কেউ নষ্ট করার চেষ্টা করলে, তৎক্ষণাত তথ্য চলে যাবে কর্তৃপক্ষের কাছে৷ কে এই চিপ নষ্ট করার চেষ্টা করছে, তা দ্রুত ধরে ফেলা যাবে৷

২৷ শুধু তাই নয়, চিপ লাগানো ই-পাসপোর্টের অনৈতিক ব্যবহারও আটকানো যাবে একই প্রক্রিয়ায়৷ সেক্ষেত্রে কোন কোনও জায়গায় অনৈতিক ভাবে এই পাসপোর্ট ব্যবহার করা হচ্ছে বা হয়েছে, তা চিহ্নিত করা যাবে৷ ব্লক করে দেওয়া যাবে সেই ব্যবহারের রাস্তা৷

৩৷ মোদী সরকার জানিয়েছে ডিজিটাল পদ্ধতিতে এই চিপে গ্রাহকের সই থাকবে৷ ফলে পাসপোর্ট জাল করার কোনও রাস্তা থাকবে না হ্যাকারদের কাছে৷ ইতিমধ্যেই কেন্দ্রে পক্ষ থেকে এই চিপ লাগানো পাসপোর্ট তৈরির অনুমোদন মিলেছে৷ নাসিকের ইণ্ডিয়া সিকিওরিটি প্রেসে তৈরি হতে চলেছে চিপ বসানো ই-পাসপোর্ট৷

৪৷ যে চিপ পাসপোর্ট থাকবে তা সিলিকনের তৈরি ও একটি পোস্টাল স্ট্যাম্পের থেকেও ছোট আকারের হবে৷ ই-পাসপোর্ট আকারে সাধারণ পাসপোর্টের তুলনায় অনেক পাতলা হবে৷ ইমিগ্রেশন কাউন্টারে এই পাসপোর্ট দিলে গ্রাহকের সময় অনেক কম লাগবে৷ প্রযুক্তিগত ভাবে মাইক্রো চিপটি রিড করতে মেশিনের লাগবে এক সেকেণ্ডের মত সময়৷

৫৷ এই চিপটিতে গ্রাহকের ৩০টি আন্তর্জাতিক যাত্রার পূর্ণাঙ্গ তথ্য রাখার মত স্টোরেজ থাকবে৷ জানানো হচ্ছে প্রায় ৬৪ কিলোবাইট মেমরি স্পেস থাকবে চিপে৷