স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: রাজ্যে তৃতীয় দফার ভোট হয়ে গিয়েছে। বাকি আরও চার। ভোট প্রচারে বেরিয়ে নেতা নেত্রীদের বক্তব্য এবং তার পাল্টা বক্তবে সরগরম বাংলার রাজনীতি। আসানশোলে তৃণমূল প্রার্থী মুনমুন সেন, মা সুচিত্রা সেনের আত্মার শান্তির জন্য ভোট চেয়েছিলেন কদিন আগে। তারই পাল্টা বাম যুব নেতা শতরূপ বলেন, “মায়ের আত্মার শান্তির জন্য মায়ের শ্রাদ্ধের কাজ করলেই হয়। জনগনের শ্রাদ্ধ করার কী দরকার আছে?”

সপ্তদশ লোকসভা নির্বাচনে আসানশোল থেকে তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী হয়েছেন অভিনেত্রী মুনমুন সেন। একটি নির্বাচনী জনসভা থেকে মুনমুন নিজের মা প্রয়াত কিংবদন্তি অভিনেত্রী সুচিত্রা সেনের উল্লেখ করে বলেন, “আমার মায়ের আত্মার শান্তির জন্য আমাকে ভোট দিন।” মুনমুন ভালো করেই জানেন মারা গেলেও এখনও বাংলার জনমানসে বেঁচে আছেন সুচিত্রা সেন। রয়েছে তার জনপ্রিয়তাও। ভোটে জিততে এই জনপ্রিয়তাকেই কাজে লাগানোর চেষ্টা করেছেন মুনমুন।

এরই পাল্টা দিয়ে ডিওয়াইএফআইয়ের রাজ্য কমিটির সদস্য শতরূপ ঘোষ বলেন, “বাঁকুড়ার মানুষের শ্রাদ্ধ করে মন ভরেনি তাই এবার এসেছেন আসানশোলের মানুষের শ্রাদ্ধ করতে।” তবে শুধু তৃণমূল প্রার্থীকেই নয় আসানশোলের বিজেপি প্রার্থী গায়ক বাবুল সুপ্রিয়কে উদ্দেশ্য করে রাজ্যের তরুণ বাম নেতা বলেন, ” গতবার মোদী আসানশোলে এসে বলেছিলেন আপনারা আমাকে বাবুল দিন। মানুষ দিয়েছিল। তারপর কী হল? বাবুলের কপালের তালা খুলল আর আসানশোলে হিন্দুস্থান কেবলস, বার্ন স্ট্যান্ডার্ড এর তালা বন্ধ হল।”

এরপর মুনমুন ও বাবুলকে কটাক্ষ করে শতরূপ বলেন, ” এসব কেরিয়ার শেষ হয়ে যাওয়া গায়ক, নায়িকাদের কাছে রাজনীতি আসলে রিটায়ারমেন্ট বেনিফিট প্যাকেজ।”

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV