কলকাতা: রানাঘাটে বিজেপি-র সভা থেকে রাজ্যের সিএএ-এনআরসি বিরোধীদের গুলি করে মারবেন বলে হুমকি দিয়েছিলেন দিলীপ ঘোষ৷ সেই হুমকির বিরুদ্ধে এবার পাল্টা ব্যবস্থা নিচ্ছে ডিওয়াইএফআই৷ এবার এই বাম যুব সংগঠন রাজ্যের থানায় থানায় দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করার কর্মসূচি নিচ্ছে৷ গণশক্তি প্রতিবেদনে তেমনই জানাচ্ছে৷

ডিওয়াইএফআই-এর রাজ্য সম্পাদক সায়নদীপ মিত্র সাংবাদিক সম্মেলন করে জানিয়েছেন, দুর্ভাগ্য যে দুষ্কৃতীদের ভাষায় কথা বলেন এমন একজনকে সাংসদ করা হয়েছেন। রাজ্যের গণতন্ত্রপ্রিয় মানুষকে প্রতিবাদকে প্রতিহত করতে ওই সাংসদ গুলি করে মারার হুমকি দিচ্ছেন। তাই দুষ্কৃতীদের সঙ্গে যেমন ব্যবহার করা উচিত তেমনই ব্যবহার করা দরকার দুষ্কৃতীদের ভাষায় কথা বলা এই দিলীপ ঘোষের সঙ্গে। তাই এবার আগামী দুদিন (১৬ এবং ১৭ জানুয়ারি) রাজ্যের সব থানায় দিলীপ ঘোষের নামে নির্দিষ্ট বয়ানে অভিযোগ দায়ের করবে ডিওয়াইএফআই কর্মীরা বলে জানান হয়েছে।

এই ডিওয়াইএফআই নেতা হতাশা প্রকাশ করেছেন, রাজ্য সরকারের ভূমিকায় নিয়ে৷ কারণ এতগুলো দিন কেটে গেলেও পুলিশ দিলীপ ঘোষের বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নিতে পারেনি৷ ফলে রাজ্য পুলিশ তথা মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধেও প্রতিবাদ হবে বলে ইঙ্গিত দেওয়া হয়েছে।

তবে দিলীপ ঘোষের এই ‘গুলি করে মারা হবে’ মন্তব্য ঘিরে বিজেপির অন্দরেই সংঘাত দেখা গিয়েছে ৷ বিশেষত দিলীপ ঘোষের ওই মন্তব্যের বিরোধিতা করতে দেখা গিয়েছে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়কে৷দিলীপের মত দলের নয় বলে টুইটে দাবি করেন বাবুল সুপ্রিয়। বাবুলের এই মন্তব্যের প্রেক্ষিতে পালটা প্রতিক্রিয়া দেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি। দলের গাইডলাইন মেনেই এই মন্তব্য করেছেন বলে জানান দিলীপ ঘোষ। দিলীপ ঘোষের মন্তব্যের পর ফের মুখ খোলেন বাবুল। বক্তব্যে অনড় থেকেই তিনি জানান, দিলীপ ঘোষ সম্পর্কে তিনি আগেও যা বলেছেন এখনও তাই বলছেন। শুধু তাই নয় সেটা রিট্যুইট করতে দেখা গিয়েছে রাজ্যসভার সাংসদ স্বপন দাশগুপ্তকে ৷