পোস্তা ব্রিজ

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: তিন বছর আগে আজকের দিনে কলকাতার বুকে পোস্তা উড়ালপুল ভেঙ্গে পড়েছিল। লোকসভা ভোটের মুখে ওই উড়ালপুলের দুর্ঘটনাকে প্রচারে আনতে চাইছে বিরোধীরা৷ তার পরিপ্রেক্ষিতে রাজ্যের পূর্তমন্ত্রী জানান,নির্বাচনের সময় পোস্তা উড়ালপুল নিয়ে বাজার গরম করে লাভ নেই৷

রবিবার সল্টলেকে একটি অনুষ্ঠানে রাজ্যের পূর্তমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম জানান, পোস্তা উড়ালপুল একটা সেন্সেটিভ ব্যাপার৷ নির্মানের সময় তা ভেঙ্গে পড়েছিল৷ ঘটনার পর তৎকালীন রাজ্যের মুখ্যসচিবকে নিয়ে একটি বিশেষ তদন্ত কমিটি গড়েছে রাজ্য সরকার৷ সেই কমিটিই সব ঠিক করবে৷ নির্বাচন এসছে বলে এই সময় পোস্তা উড়ালপুল নিয়ে বাজার গরম করে লাভ নেই৷

২০১৬ সালের ৩১ মার্চ বিধানসভা নির্বাচনের মুখে ভেঙে পড়েছিল পোস্তা উড়ালপুলের একাংশ৷ ওই ঘটনায় মৃত্যু হয়েছিল ২৭ জনের৷ তাদের আত্মার শান্তি কামনায় তিন বছর পুর্তি উপলক্ষে রবিবার শহরে মোমবাতির মিছিল করা হয়৷ এদিন বিভিন্ন রাজনৈতিক দল, বিশেষ করে বিরোধীরা ও অন্যান্য সংগঠন আলাদা আলাদাভাবে ওই মিছিল করে। বর্তমান রাজ্য সরকারের সময়ে ওই উড়ালপুল ভেঙ্গে পড়ায় বিরোধীরা সরকারকেই দায়ী করে৷ উড়ালপুল নির্মাণের কাজের মান নিয়েও প্রশ্ন উঠে৷

কলকাতার বিবেকানন্দ রোডের ওপর পোস্তা উড়ালপুল ভেঙে পড়ার পর বিশেষ কমিটি তদন্ত করে৷ কমিটিতে রয়েছে খড়গপুর আইআইটির তিন বিশেষজ্ঞ অধ্যাপক ও রাজ্যের তদানীন্তন মুখ্যসচিব বাসুদেব বন্দ্যোপাধ্যায়৷ সূত্রের খবর,সংশ্লিষ্ট এলাকার মাটির মান পরীক্ষা করে কমিটির রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে, সংশ্লিষ্ট এলাকার মাটির মান খুবই খারাপ৷ তাই ওখানে ভবিষ্যতে নতুন করে সেতু নির্মাণ করা হলেও তা ভেঙে পড়ার আশঙ্কা উড়িয়ে দেওয়া যাবে না৷ দীর্ঘ সময় ধরে বিভিন্ন ইঞ্জিনিয়ারিং সংস্থার সঙ্গে আলোচনা করে উড়ালপুল ভেঙে ফেলার পক্ষেই মত দিয়েছে কমিটি৷ তা স্বত্বেও এখনও ওই উড়ালপুল ভাঙ্গা হয়নি৷