দেবযানী সরকার, কলকাতা: প্রচারের আলোর অভাবে দক্ষিণের এক অনগ্রসর শ্রেণির শিল্পকলা ক্রমশ বিপন্নতার মুখে৷অনাদরে থাকা সেই শিল্পকলা দিয়েই এবার মণ্ডপ সাজাচ্ছে সিকদার বাগান  সাধারণ দুর্গোৎসব৷ দেবী দুর্গাকে প্রণাম জানিয়ে এবছর তাদের থিম-‘প্রণমি তোমারে’৷12084165_1038015826216774_2047917135_n

অন্ধ্রপ্রদেশের অনন্তপুর জেলার অধিকাংশ মানুষের জীবিকা পশুপালন৷ স্থানীয় ভাষায় তাকে বলা হয় ‘আতাগোল্লালু’৷এছাড়াও তাঁদের আরও একটি জীবিকা হল ‘ফুলুগোমলতা’৷ অনন্তপুরের মানুষের কাছে এই ফুলুগোমলতা এক ধরনের শিল্পকলাও৷ হরিণ ও ছাগলের চামড়া দিয়ে তৈরি করা পুতুলের নাচ দেখান তাঁরা৷ বছরের তিনমাস এটাই তাঁদের জী12047599_1038015966216760_1323776339_nবন-জীবিকা৷ আর বাকি ন’মাস ছবি আঁকেন তাঁরা৷গত কয়েকবছর ধরে ‘ফুলুগোমলতা’ শিল্প বিপন্নতার মুখে৷ দক্ষিণের এই বিপন্ন শিল্পকে প্রচারের আলোয় আনার উদ্যোগ নিয়েছে উত্তর কলকাতার সিকদার বাগান  সাধারণ দুর্গোৎসব৷

গোটা মণ্ডপের দেওয়াল জুড়ে থাকবে অনন্তপুরের ‘ফুলুগোমলতা’ শিল্প৷ বিভিন্ন রকমের পুতুল দিয়ে সাজানো হচ্ছে মণ্ডপ৷ মণ্ডপ শিল্পী মানস রায় জানিয়েছেন, মণ্ডপে একটা ‘ফোক লুক’ থাকছে৷ মণ্ডপসজ্জায় প্রায় ১২০০ ল্যাম্প শেড ব্যবহার করা হচ্ছে৷ মণ্ডপে আলো-আঁধারির খেলা দর্শকদের বিশেষ নজর কাড়বে বলে মনে করছেন উদ্যোক্তারা৷ কমিটির একজিকিউটিভ সদস্য সৌমেন মুখোপাধ্যায় বললেন, ‘‘অনগ্রসর শ্রেণির শিল্পকর্মকে আমরা তুলে ধরতে চাইছি৷ থিমের মণ্ডপ হলেও সাবেকি প্রতিমা থাকছে মণ্ডপে৷ থিম মিউজিক করছেন দোহারের কালিকাপ্রসাদ৷’’

থিমপুজো বরাবরই নানা শিল্পকে তুলে এনেছে৷ দক্ষিণের এই প্রায় অপরিচিত শিল্পকে সামনে তুলে আনার প্রয়াস শহরবাসীকে তৃপ্তি দেবে বলেই আশা কর্মকর্তাদের৷