কলকাতা: দশমী। কৈলাশের উদ্দেশ্যে রওনা দিলেন উমা। বিষাদের সুর সর্বত্র। কিন্তু এরই মধ্যে শহরের অন্যপ্রান্ত সেজে উঠছে আরও বড় একটি ইভেন্টের জন্যে। দুর্গা কার্নিভাল। গত কয়েক বছর ধরে দুর্গা কার্নিভাল শহরবাসীর কাছে অন্যতম আকর্ষনীয় হয়ে উঠেছে। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের উদ্যোগে প্রতি বছর এই দুর্গা কার্নিভাল করা হয়। একেবারে বিদেশের ধাঁচে শহর কলকাতাতেও গত কয়েক বছর ধরে এই কার্নিভালের আয়োজন করা হয়।

যেখানে শহরের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে হেভিওয়েট পুজোগুলি আসে। একটা সুন্দর অনুষ্ঠানের মাধ্যমে তা কার্নিভালে আসা মানুষের সামনে ডিসপ্লে করেন সংশ্লিষ্ট পুজোর উদ্যোক্তারা। এক জায়গায় সমস্ত বড় পুজোর দেখার সুযোগ, কেউ কি আর হাতছাড়া করতে পারে! আর সেজন্যে কার্নিভাল দেখার জন্যে প্রচুর মানুষ আসেন।

শুধু বাংলার মানুষই নন, পুজোকে সামনে রেখে বাংলায় পর্যটনের একটা দিগন্ত খুলে দিতে চান মুখ্যমন্ত্রী মমতা। আর সেজন্যে প্রচুর বিদেশ থেকেও অতিথিরা আসেন এই কার্নিভাল দেখার জন্যে। আর তাই রেড রোডে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। থিমের সাজে সাজিয়ে তোলা হচ্ছে রেড রোড চত্বরকে। থাকছে অসাধারণ আলোর সাজও। দেশ-বিদেশ থেকে যেহেতু বহু বিশিষ্ট অতিথিরা এই দুর্গা কার্নিভ্যাল দেখতে আসেন সেজন্য নিরাপত্তার চাদরে মুড়ে ফেলা হচ্ছে গোটা এলাকাকে।

লালবাজার সূত্রে জানা গিয়েছে, সিসিটিভি, ওয়াচ টাওয়ার, স্নিফার ডগের মাধ্যমে চলছে নজরদারি। এছাড়া মোতায়েন করা হচ্ছে প্রচুর পুলিশকর্মী। সাধারণ মানুষও যাঁরা অনেক পুজো সময়ের অভাবে দেখতে পারেন না তাঁরা এখানেই প্রতিমা দর্শন করে নিতে পারেন। ফলে বেশ কয়েকটি জায়গা করা হচ্ছে। যেখানে শহরবাসী বসে এই কার্নিভাল দেখতে পারবেন। অন্যদিকে থাকবে অতিথিদের বসার জায়গা। অন্যদিকে প্রতিবারের মতো খিদিরপুরের দিকে থাকছে প্রতিমাগুলি রাখার জায়গা।