আলুর: বৃষ্টি পিছু ছাড়ছে না চলতি দলীপ ট্রফির। প্রথম ম্যাচের বেশিরভাগ সময় বৃষ্টিতে নষ্ট হওয়ার পর দ্বিতীয় ম্যাচের প্রথম দিনেও প্রতিবন্ধকতা তৈরি করে প্রকৃতি। ইন্ডিয়া রেড বনাম ইন্ডিয়া ব্লু দলের খেলা প্রথম দিনে গড়ায় ৬৮ ওভার। টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নেমে ইন্ডিয়া রেড দল আপাতত ম্যাচের রাশ নিজেদের হাতে রেখেছে।

যদিও ইন্ডিয়া রেড দলের শুরুটা মনে রাখার মতো হয়নি মোটেও। মাত্র ৪৩ রানের মধ্যে দুই ওপেনার অভিমন্যু ঈশ্বরণ ও প্রিয়ঙ্ক পাঞ্চালের উইকেট হারিয়ে বসে তারা। তবে অঙ্কিত কলসিকে সঙ্গে নিয়ে করুণ নায়ার প্রাথমিক বিপর্যয় রোধ করেন এবং পরিস্থিতি নিজেদের অনুকূলে নিয়ে আসেন।

ব্যাট হাতে ব্যর্থ হয়েছেন অভিমন্যু। খাতা খোলার আগেই বাংলার ওপেনারকে মাঠ ছাড়তে বাধ্য করেন অনিকেত চৌধরী। ম্যাচের প্রথম ওভারেই এলবিডব্লু হয়ে সাজঘরে ফেরেন ঈশ্বরণ। অধিনায়ক প্রিয়ঙ্ক পাঞ্চাল ১৫ রান করে পাঠানিয়ার বলে উইকেটকিপার স্নেল প্যাটেলের দস্তানায় ধরা পড়েন। ৪৯ বলের সংক্ষিপ্ত ইনিংসে তিনি ২টি বাউন্ডারি মারেন।

অঙ্কিকে সঙ্গে নিয়ে করুণ নায়ার তৃতীয় উইকেটের জুটিতে ১২০ রান যোগ করে অবিচ্ছেদ্য রয়েছেন। ইতিমধ্যে ব্যক্তিগত অর্ধশতরান পূর্ণ করে সেঞ্চুরির দোরগোড়ায় কড়া নাড়ছেন নায়ার। ব্যক্তিগত হাফসেঞ্চুরির দরজায় দাঁড়িয়ে রয়েছেন কলসি। নায়ার ১৮৯ বলে ব্যক্তিগত ৯২ রানে অপরাজিত রয়েছেন। অঙ্কিত নট-আউট রয়েছেন ৪৮ রান করে। নায়ার ৯টি ও অঙ্কিত ৪টি বাউন্ডারি মেরেছেন। ইন্ডিয়ার রেড দল আপাতত প্রথম দিনের শেষে ২ উইকেট হারিয়ে ১৬৩ রান তুলেছে। ব্লু দলের হয়ে ১টি করে উইকেট নিয়েছেন অনিকেত ও পাঠানিয়া।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।