স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: করোনা সতর্কতার জেরে দেশ জুড়ে ‘লকডাউন’ চলছে। নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের দোকানপাট খোলা থাকলেও যাত্রীবাহি যানবাহন চলাচল সম্পূর্ণ বন্ধ। এই অবস্থাতে মানবিক বাঁকুড়া।

আরামবাগে আলু তোলার কাজ শেষে দীর্ঘ পথ পায়ে হেঁটে বাড়ির পথ ধরা শ্রমিকদের খাওয়া দাওয়ার পাশাপাশি রাতে থাকার ব্যবস্থা ও তাদের গাড়িতে চাপিয়ে বাড়ি পৌঁছানোর ব্যবস্থা করলেন বাকুঁড়ার উপ পুরপ্রধান দিলীপ আগরওয়াল।

গঙ্গাজলঘাটির উখড়াডিহি সংলগ্ন জামশোলা গ্রামের কয়েক জন যুবক আরামবাগের রামকৃষ্ণপুরে আলু তোলার কাজে গিয়েছিলেন। লকডাউন পরিস্থিতিতে কোনও যানবাহন না পেয়ে বাড়ির পথ ধরেন তারা। সোমবার রাতে বাঁকুড়া শহরে পৌঁছালে উপ পুরপ্রধান দিলীপ আগরওয়ালের নজরে বিষয়টি আসায় তিনি তাদের খাওয়া দাওয়া শেষে একটি একটি লজে থাকার ব্যবস্থা করেন।

এদিন সকালে বাঁকুড়া সদর থানার পুলিশের সাহায্যে তাদের হাসপাতালে নিয়ে স্বাস্থ্য পরীক্ষা শেষে দুপুরের খাবার খাইয়ে বাড়ি যাওয়ার গাড়ির ব্যবস্থা করে দেন। এই ঘটনায় খুশি সংশ্লিষ্ট শ্রমিকেরাও। ওই শ্রমিকদের দলে থাকা লালু বাউরী ঘটনার বিবরণ দিয়ে বলেন, উপ পুরপ্রধান খুব সাহায্য করেছেন। বাড়ি ফিরতে পেরে তারা খুব খুশি বলেই তিনি জানান।

এই বিষয়প উপ পুরপ্রধান দিলীপ আগরওয়াল বলেন, বিষয়টি আমার নজরে আসায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করি। এদিন প্রত্যেকের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করানো হয়েছে। তাদের বাড়ি যাওয়ার গাড়ির ব্যবস্থা পুরসভার তরফে করা হয়েছে বলে তিনি জানান।