স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: সেচের জলের দাবিতে পূর্ব মেদিনীপুর জেলার তমলুক ব্লকের চাষিরা তমলুক-পাঁশকুড়া রাস্তা আটকে এক ঘন্টা ধরে অবরোধ করে বিক্ষোভ দেখালেন। এই ব্লকের চাষিরা পায়রাটুঙ্গি খালের উপর চাষের জন্য নির্ভরশীল। গত বছর আমন চাষে অতিবৃষ্টি এবং ঐ খাল পরিষ্কার না থাকার ফলে চাষীরা একেবারেই ধান পাননি। পান, ফুলেরও যথেষ্ট ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

সূত্রের খবর, বোরো ধান চাষ শুরু হয়েছে। কিন্তু, পূর্ণিমা চলে গেলেও জল ছাড়া হয়নি। মানিকতলায় রাস্তার কাজের নামে হঠাৎ করে খাল ঘিরে দেওয়ায় একটুও জল আসছে না। চাষীরা অভিযোগ করে বলেন, “মাঠে ধান শুকিয়ে নষ্ট হচ্ছে। আমন ধান নষ্ট হয়েছে। বোরো ধান শুকিয়ে গেলে খাব কি? তাই অবরোধ করে প্রশাসনকে জল ছাড়ার দাবি জানাচ্ছি।”

জানা গিয়েছে, দীর্ঘদিন এই খালটি পূর্ণাঙ্গ সংস্কার না হওয়ায় একটু বৃষ্টিতেই মাঠের জল বেরোয় না। জোয়ারের জল আসছে না। বিষয়টি নিয়ে বহুবার বিডিও এবং সেচ দফতরে জানানো হলেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি। ফলে চাষের ভীষণ ক্ষতি হচ্ছে। চাষীদের না জানিয়ে হঠাৎ করে খাল বাধার ফলে চাষের জমিতে জল আসছে না। ধান নষ্ট হচ্ছে। ফলে এদিন সকালে শ্রীরামপুর বাস স্টপেজের কাছে কয়েকটি গ্রামের প্রায় ২০০ চাষি রাজ্য সড়ক অবরোধ করেন। এবং বিক্ষোভ দেখান।

পরে পুলিশ প্রশাসন এবং পঞ্চায়েত অফিস থেকে আধিকারিকরা এসে প্রতিশ্রুতি দিলে অবরোধ তুলে নেন গ্রামবাসীরা। শুধু তাই নয়, আগামী বৃহস্পতিবারের মধ্যে জল ছেড়ে দেওয়া হবে। এবং খাল সংস্কারের বিষয়ে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলে একটি সভার আয়োজন করা হবে বলে জানা গিয়েছে। চাষিদের দাবি, জল ঠিকঠাক না এলে আগামীদিনে জোরালো প্রতিবাদ করা হবে।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।