স্টাফ রিপোর্টার, বনগাঁ: করোনা আতঙ্কের জের। ভারত-বাংলাদেশ সীমান্তে যাতায়াতের ক্ষেত্রে নিষেধাজ্ঞা জারি করল কেন্দ্রীয় সরকার। ১৩ মার্চ অর্থাৎ শুক্রবার বিকেল থেকে ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত নতুন করে যেমন কোনও ভিসা দেওয়া হবে না, তেমন ট্যুরিস্ট ভিসা, মেডিক্যাল ভিসা, স্টুডেন্ট ভিসা সহ অন্যান্য ধরনের ভিসা যাদের দেওয়া হয়েছিল, তা বাতিল করে দেওয়া হয়েছে।

জানা গিয়েছে, বিশেষ কয়েকটি ক্ষেত্র ছাড়া বাংলাদেশ থেকে কোনও নাগরিক ভারতবর্ষে ঢুকতে পারবেন না। জরুরি ভিত্তিতে কারও কোনও প্রয়োজন থাকলে তাঁদের বাংলাদেশে থাকা ভারতীয় হাইকমিশনে যোগাযোগ করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বনগাঁর পেট্রাপোল সীমান্তে এই সংক্রান্ত নির্দেশিকার কথা জানিয়ে দিয়েছে অভিবাসন দফতর।

সূত্রের খবর, ১৩ মার্চ থেকে আগামী ১৫ এপ্রিল পর্যন্ত, বনগাঁর পেট্রাপোল সীমান্ত এবং বসিরহাট মহকুমার ঘোঁজাডাঙা সীমান্ত দিয়ে দুই দেশের যাত্রীরা কেউ কোনও দেশে যেতে পারবেন না।

তবে পণ্য পরিবহনের ক্ষেত্রে এই নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করা হচ্ছে না। বনগাঁর পেট্রাপোল সীমান্তের অভিবাসন দফতর সূত্রে জানানো হয়েছে, যাদের ভিসা চলতি মাসের ১৩ ই মার্চ থেকে ১৫ এপ্রিলের মধ্যে কার্যকর করা রয়েছে, তাদের আসা যাওয়ার ক্ষেত্রে কোনও বাঁধা নেই। তবে নতুন করে এই সময়কালের মধ্যে কোনও দেশের নাগরিককে সীমান্ত পারাপারের অনুমতি দেবে না ভারত সরকার। শুক্রবার বিকেল থেকেই উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাট ও বনগাঁ মহকুমা এলাকার এই দুটি আন্তর্জাতিক সীমান্ত দিয়ে যাত্রী পারাপার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ ঘোষনা করা হয়েছে।