স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: আমডাঙায় অশান্তির ঘটনার জের৷ বদলি করা হল উত্তর ২৪ পরগনার ডিএসপি হেড কোয়ার্টার কল্যাণকুমার রায়কে৷ জেলার ডিএসপি হেড কোয়ার্টার করা হল শুভাশিষ রায়কে৷ ভবানী ভবন থেকে শুক্রবার এই নির্দেশিকা জারি করা হয়৷

তাড়াবেরিয়া গ্রাম পঞ্চায়েত বোর্ড গঠন ঘিরে গত মঙ্গলবার রাতে তৃণমূল সিপিএম সংঘর্ষে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় উত্তর ২৪ পরগনার আমডাঙা৷ নিহত হন দুপক্ষের মোট ৩ জন৷ ঘটনার পর থেকে এলাকার বিভিন্ন প্রান্ত থেকে উদ্ধার হয় কয়েকশ তাজা বোমা৷

আগাম সতর্কতা সত্বেও পুলিশ অশান্তি ঠেকাতে ব্যর্থ হয়৷ সংঘর্ষের কারণে ঘটনার পরদিন বুধবারই বদলি করা হয় আমডাঙা থানার আইসি মানস দাসকে৷ প্রশাসনের তরফে তাড়াবেরিয়া সহ মোট তিনটি গ্রাম পঞ্চায়েতে বোর্ড গঠন প্রক্রিয়া স্থগিত ঘোষণা করা হয়৷ এরপর এদিন বদল করা হল ডিসি হেড কোয়ার্টারকে৷

অন্যদিকে, মঙ্গলবার রাতের পর থেকে এখনও ছন্দে ফেরেনি আমডাঙা এলাকা৷ চারদিকে আতঙ্কের বাতাবরণ৷ প্রতিটি গ্রামই প্রায় পুরুষ শূন্য। প্রাণে বাঁচতে গ্রাম ছেড়ে বহু পরিবারই অন্যত্র চলে গিয়েছে। তবে তারই মাঝে জনশূন্য গ্রাম থেকে এখনও শোনা যাচ্ছে গুলির আওয়াজ৷ উদ্ধার হচ্ছে বোমা৷ আশান্তি এড়াতে চলছে পুলিশি তল্লাশি৷

গুলি বোমার সঙ্গেই আমডাঙার গ্রামে শোনা যাচ্ছে ভারি বুটের শব্দ। এই পরিস্থিতিতে বন্ধ এলাকার সব স্কুল, কলেজ৷ শিকেয় উঠেছে পঠনপাঠন। বাজারে গুটি কয়েক দোকান খুললেও খদ্দেরের আনাগোনা নেই। শিক্ষাঙ্গণে পড়ুয়ার জায়গায় এখন ভিড় খাঁকি উর্দিধারীদের৷ এত কিছুর পরও সম্পূর্ণ এড়ানো যাচ্ছে না অশান্তি৷ বৃহস্পতিবার রাতেও বোমাবাজি হয়েছে আমডাঙার বেশ কয়েকটি এলাকায়।

সূত্রের খবর, পরিস্থিতি স্বাভাবিক না হওয়া পর্যন্ত পুলিশি অভিযান চলবে আমডাঙা জুড়ে। ঘর ছাড়াদের প্রার্থনা অশান্তি মিটে যাক৷ ফিরে আসুক শান্তি৷ সংঘর্ষ ভুলে আবরও চেনা ছন্দে ধরা দিক আমডাঙা৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।