ফাইল ছবি

বিধাননগর: মদ্যপ অবস্থায় মহিলার শ্লীলতাহানির চেষ্টা৷ প্রযুক্তিগত সাহায্য নিয়ে মাত্র এক সপ্তাহে মূল অভিযুক্তকে গ্রেফতার করল পুলিশ৷ ধৃতের নাম রামবাবু৷ তিনি টালিগঞ্জের বাসিন্দা৷

বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেট জানিয়েছে, ২২ সেপ্টেম্বর সন্ধ্যায় বিমানবন্দর থেকে ৪৫ নম্বর রুটের বাসে উঠেছিলেন এক মহিলা তার গন্তব্য ছিল কলকাতার গাঙ্গুলিবাগান৷ কিন্তু কিছুক্ষণ পর তিনি জানতে পারেন যে বাসটি তার গন্তব্যে যাবে না৷ তাই তিনি লেকটাউন পিএস এলাকার দক্ষিণদারী বাসস্ট্যান্ডে নেমে যান৷

এরপর অন্য কোনও যানবাহনের জন্য বাসস্টপে অপেক্ষা করতে থাকেন৷ কিছুক্ষণ পরে এক ব্যক্তি মদ্যপ অবস্থায় সেখানে এসে তার প্রতি কুৎসিত মন্তব্য করতে শুরু করে৷ এমনকি ওই মহিলার শ্লীলতাহানি করার চেষ্টা করে৷

তখন অভিযোগকারী মহিলা ফেসবুক লাইভের মাধ্যমে পুরো ঘটনাটি ক্যাপচার করেন এবং তার টাইমলাইনে পোস্ট করেন৷ এটি দেখার পরে বিধাননগর পুলিশ তাত্ক্ষণিকভাবে অভিযোগের ভিত্তিতে একটি নির্দিষ্ট মামলা নথিভুক্ত করে৷

কিন্তু সমস্যা হল ওই মহিলা অভিযুক্তের কোনও পরিচয়ের বিবরণ দিতে পারেননি৷ পুলিশের হাতে শুধু অভিযুক্তের ছবি ছিল৷ শুরু হয় তদন্ত৷ বিধাননগর পুলিশ কমিশনারেটের গোয়েন্দা বিভাগের মনিটরিং সেল প্রযুক্তিগত সাহায্য নিয়ে তদন্তে এগোতে থাকে৷

তদন্তে জানা যায়,অভিযুক্ত ব্যক্তি অভিযোগকারীর সাথে কথোপকথনের সময় জানিয়েছিলেন যে, তিনি রাসবিহারীর বাসিন্দা৷সেই মত ডিডি টিম দক্ষতার সাথে রাসবিহারী অঞ্চলটির কয়েকটি ফোন নম্বর ট্রেস করেন৷ এই নম্বরগুলি থেকে সঠিক নম্বর টি খুঁজে বের করেন৷ অবশেষে বুধবার অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় পুলিশ৷

পৃথক শ্লীলতাহানির ঘটনায় আরও দু’জনকে গ্রেফতার করে বিধাননগর দক্ষিণ থানার পুলিশ৷ ধৃতদের বাড়ি বিধাননগরে৷

পুলিশ সূত্রে খবর, গত রবিবার ওই ঘটনাটি ঘটে বিধাননগর দক্ষিণ থানা এলাকায়৷ দ্বাদশ শ্রেণীর ওই ছাত্রী টিউশন পড়তে গিয়েছিল চিংড়িহাটা এলাকায়৷ বাড়ি ফেরার পথে তাকে দুই মদ্যপ যুবক শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে বলে অভিযোগ৷

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।