জলপাইগুড়ি: জাতীয় সড়ক সম্প্রসারণের কাজ শুরু হওয়া থেকেই ছিল সমস্যা। এবার সেই সমস্যা আরও বড় আকার নিল। সৌজন্যে মাটির নিচে থাকা পানীয় জলের পাইপ।

ঘটনাটি উত্তরবঙ্গের জলপাইগুড়ি জেলার অরবিন্দ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার। ওই এলাকার মোহিতনগরের পূর্ব ও পশ্চিম পাড়া এবং গৌরি কন এলাকায় কয়েক হাজার মানুষ বাস করেন। পানীয় জল নিয়ে তারা এই মুহূর্তে চরম সংকটের মধ্যে পড়েছেন।

জাতীয় সড়ক সম্প্রসারণের কাজ চলাকালীন ফেটে যায় মাটির নিচে থাকা জলের পাইপ। যার ফলে জল বেড়িয়ে ওই গ্রামগুলির অনেক জায়গা পুকুরে পরিণত হয়ে গিয়েছে। বিশেষ করে পাকুরতলা এলাকার অনেক জায়গা পুকুরে পরিণত হয়েছে।

একই সঙ্গে পানীয় জলেরও সংকট দেখা দিয়েছে। কারণ পাইপ ফেটে যাওয়ায় বিঘ্ন ঘটেছে জলের স্বাভাবিক সরবারহে। তাছাড়া পাইপ ফেটে যাওয়ায় জলের মধ্যে মিশেছে নোংরা। যা জল একেবারেই পানের অযোগ্য।

এই অবস্থায় স্থানীয় বাসিন্দারা অনেকেই জল কিনে খাচ্ছেন। তবে অনেকের জল কিনে খাওয়ার মত সামর্থ্য নেই। তাঁদের অনেক দূর থেকে বয়ে নিয়ে আসতে হচ্ছে পানীয় জল। সবমিলিয়ে প্রবল প্রতিকূল পরিস্থিতির মধ্য রয়েছেন জলপাইগুড়ি জেলার অরবিন্দ গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার কয়েক হাজার মানুষ।

এই বিষয়ে স্থানীয় পঞ্চায়েতে অভিযোগ জানানো হয়েছে বলে দাবি স্থানীয়দের। পঞ্চায়েতের প্রধানও এই বিষয়ে অবগত রয়েছেন। তবুও কোনও সুরাহা হয়নি। অন্যদিকে জাতীয় সড়ক সম্প্রসারণের জন্য এলাকায় অনেক বাড়ি ভেঙে ফেলতে হচ্ছে। এরই মাঝে নতুন করে দেখা দিয়েছে জলের সমস্যা।