নয়াদিল্লি: দেশের রাজধানীতে তৈরি হয়ে গিয়েছে ১০০০ বেড সম্পন্ন কোভিড-১৯ হাসপাতাল। তাক লাগিয়ে মাত্র ১১ দিনেই এই কাজ করে দেখিয়েছে ডিআরডিও। সেনাবাহিনীর মেডিক্যাল কোম্পানি এই হাসপাতাল পরিচালনা করবে।

এছাড়াও, দিল্লির এই কোভিড হাসপাতালে একহাজার বেড ছাড়াও ২৫০টি আইসিইউ বেডেরও ব্যবস্থা রয়েছে এবং গোটা হাসপাতালই শীততাপ নিয়ন্ত্রিত বলেই জানা গিয়েছে রিপোর্ট সূত্রে।

শনিবার নতুন করে ২৫০৫টি করোনা সংক্রমণের ঘটনা সামনে এসেছে। দিল্লিতে বর্তমানে মোট সংক্রমিত ৯৭০০০ পেরিয়ে গিয়েছে, মৃত্যু হয়েছে ৩,০০৪ জনের।

হাসপাতালের আইসিইউ এবং ভেন্টিলেটর ওয়ার্ড লাদাখে শহিদ কলোনেল বি সন্তোষ বাবু’র নামে নামকরণ করা হয়েছে।

ডিফেন্স রিসার্চ এন্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশনের তরফে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে, সর্দার বল্লভ ভাই পটেল হাসপাতালের বিভিন্ন ওয়ার্ড গালওয়ান উপত্যকায় শহিদ জওয়ানদের নামেই করা হবে।

এরইমধ্যে দিল্লির বৃহত্তম কোভিড কেয়ার সেন্টারটি ছাত্তারপুর এলাকার রাধা সোয়ামি সৎসঙ্গ বিস এলাকায় তৈরি হয়েছে। এটি দিল্লি-হরিয়াণা সীমান্ত লাগয়া এলাকায় তৈরি করা হয়েছে।

২০০০ জন ইন্দো-তিব্বত বর্ডার পুলিশ, সেন্ট্রাল আর্মড পুলিশ ফোরস, ডাক্তারই হাসপাতালের সম্পূর্ণ কাজ সামলাচ্ছেন। প্রধানমন্ত্রীর লে সফরের সময় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। জুনের ১৫ তারিখ চিনের সঙ্গে রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে শহিদ হয়েছেন ২০ জন ভারতীয় জওয়ান।

এমন একটি দিনে ডিআরডিও এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে, যেদিন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী লেহ ও লাদাখ পরিদর্শনে যান। সেখানে গিয়ে সেনাবাহিনী ও ইন্দো-টিবেটান বর্ডার পুলিশের জওয়ানদের সঙ্গে দেখা করেন তিনি। তাঁদের মনোবল বাড়ান প্রধানমন্ত্রী। দেশের জন্য যে ২০ জওয়ান শহিদ হয়েছেন তাঁদের শ্রদ্ধা জানিয়েছেন তিনি।

সীমান্তে দাঁড়িয়ে চিনের নাম না করেই পড়শি দেশকে চরম হুঁশিয়ারি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তাঁর এই সফরে তাঁর সঙ্গে ছিলেন চিফ অফ ডিফেন্স স্টাফ জেনারেল বিপিন রাওয়াত ও সেনাপ্রধান জেনারেল এম এম নারাভানে। ভারতীয় সেনাদের জন্য উন্নত প্রযুক্তির অস্ত্র আমদানি করা হচ্ছে বলেও প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী।

ডিআরডিও-র চেয়ারম্যানের প্রযুক্তিগত উপদেষ্টা সঞ্জীব জোশী জানিয়েছেন, “১৫ জুন চিনের সঙ্গে লড়াইয়ে গালওয়ান উপত্যকায় যে জওয়ানরা শহিদ হয়েছিলেন তাঁদের সম্মান জানাতে ডিফেন্স রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অর্গানাইজেশন সিদ্ধান্ত নিয়েছে দিল্লির নতুন সর্দার বল্লভভাই পটেল কোভিড ১৯ হাসপাতালের ওয়ার্ডের নাম তাঁদের নামে করা হবে”।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ