ভুবনেশ্বর : একদিনই তাণ্ডবলীলা চালিয়ে বাংলাদেশে ফিরে গিয়েছে ঘূর্ণিঝড় ফণী। শুক্রবার দিনভর ফণির তাণ্ডবে মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৯ জন। ক্ষয়ক্ষতির কবলে পড়েছেন রাজ্যের অগণিত মানুষ। তাই সোমবারই দুর্ঘটনা কবলিত এলাকা পরিদর্শনে ওড়িশা রওনা দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী মোদী।

ফণীর মোকাবিলায় আগাম সতর্কতা নেওয়া সম্ভব হয়েছিল। ১২ লাখ মানুষকে নিরাপদ জায়গায় সরিয়ে নিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়েছিল। বহু মানুষকে রক্ষা করা গেলেও দিন যত গড়াচ্ছে ততই বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। এখনও পর্যন্ত পাওয়া খবর অনুযায়ী, পুরীতে মৃত্যু হয়েছে মোট ৩ জনের। এদের মধ্যে ১ কিশোরও রয়েছে। পাশাপাশি ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে ভুবনেশ্বরে। নয়াগড় ও কেন্দ্রপাড়ায় মৃত্যু হয়েছে আরও ৩ জনের।

গত ২০ বছরে সবচেয়ে শক্তিশালী ঘুর্ণিঝড় হিসেবে নাম কিনেছে ফণী। গতকাল ভুবনেশ্বরে ঝড়ের গতি ছিল ঘণ্টায় সর্বোচ্চ ১৭৫ কিলোমিটার। ফলে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারতো। ওড়িশার ধ্বংসলীলা সরেজমিনে দেখতে প্রধানমন্ত্রী সোমবার সেখানে যাচ্ছেন।

গতকালই রাজস্থানে তিনি ওড়িশার জন্য আগাম ১,০০০ কোটি টাকা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছেন। পাশাপাশি তিনি টুইটারে জানিয়েছেন, সোমবার ৬ মে আমি ওড়িশায় যাব। গোটা পরিস্থিতি সরেজমিনে দেখব।