স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: সোমবার সাত সকালে বাঁকুড়ায় জোড়া খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত যুবক অরূপ চৌধুরীকে দু’দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দিল বাঁকুড়া সিজিএম আদালত। মঙ্গলবারই জোড়া খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত অরূপ চৌধুরীকে আদালতে পেশ করে বাঁকুড়া সদর থানার পুলিশ। সেখানেই তাকে দু’দিনের পুলিশি হেফাজতের নির্দেশ দেওয়া হয়।

এদিন পুলিশের পক্ষ থেকে অভিযুক্ত অরুপ চৌধুরীকে আদালতে তোলার সময় সংবাদমাধ্যমের সামনে সে খুনের কথা স্বীকার করে। অরূপ বলে, জমিজমা সংক্রান্ত পুরনো বিবাদের জেরেই সে এই কাণ্ড ঘটিয়েছে। একই সঙ্গে সে নিজেকে ‘মানসিক বিপর্যস্ত’ ও জনৈক চিকিৎসক অরবিন্দ কুমারের কাছে চিকিৎসাধীন বলে দাবি করেছে। তবে এই বিষয়ে এখনও কোনও সত্যতা ধরা পড়েনি। তাকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে পুরো ঘটনাটির তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

প্রসঙ্গত, সোমবার সকালে বাঁকুড়া সদর থানার মগরা গ্রামের অরূপ চৌধুরী নামের বছর ত্রিশের এক যুবক কুড়ুল দিয়ে এলোপাথাড়ি হামলা চালিয়ে খুন করে তার গ্রামেরই দু’জনকে। পুলিশ জানিয়েছে, মৃতরা হলেন লিচু রায় (৬৫)। এবং গুণময় চৌধুরী (৫৬)। এই ঘটনার পর থেকেই অভিযুক্ত গ্রাম ছেড়ে পালিয়ে যায়। জোড়া খুনের ঘটনা চাউর হতেই গ্রামবাসীদের মধ্যে ব্যাপক উত্তেজনা তৈরি হয় ।