কলকাতা : ব্ল্যাক ফাঙ্গাস করোনা সংক্রমণের মধ্যে আর একটি নতুন সঙ্কট তৈরি করেছে। তবে এই ব্ল্যাক ফাঙ্গাস বা কালো ছত্রাক থেকে সাধারণত সুস্থ মানুষদের সেই ভাবে আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই। শুধুমাত্র যাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কম তাদেরই ব্ল্যাক ফাঙ্গাস থেকে সমস্যা এমন কী মৃত্যু হতে পারে। এমনটাই জানাচ্ছেন ভাইরোলজিস্ট শতদল দাস। তাঁর মতে ব্ল্যাক ফাঙ্গাস থেকে সতর্ক থাকুন, আতঙ্কিত নয়।

সম্প্রতি ব্ল্যাক ফাঙ্গাসের রোগ বা মিউকোরোমাইকোসিস করোনা আক্রান্তদের মধ্যে প্রবল ভাবে ছড়াচ্ছে। দিল্লি, গুজরাত, মহারাষ্ট্র এবং বেঙ্গালুরুতে বেশ কিছু করোনা রোগীদের শরীরে এই রোগের উপস্থিতি ধরা পড়েছে। এই ফাঙ্গাল ইনফেকশন অবহেলা করলে তা মারণ রূপ ধারণ করতে পারে বলে জানিয়েছেন শতদল দাস। তিনি বলেন, “ত্বকের সমস্যা হয়ে শুরু হলেও এই সংক্রমণ ছড়াতে পারে ফুসফুস এবং মস্তিষ্ক পর্যন্ত।”

কেন্দ্রীয় সরকার এই রোগ নিয়ে সচেতনতা বাড়াতে ইতিমধ্যেই একটি নির্দেশিকা জারি করেছে। নির্দেশিকা অনুযায়ী করোনার সঙ্গে লড়াই করার জন্য যে ওষুধ ব্যবহার করা হচ্ছে, অনেকেরই সেই কারণে রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা কমে যাচ্ছে । তাই অন্য নানা রোগ সহজেই আক্রমণ করতে পারছে করোনা আক্রন্তদের। আইসিএমআর’ জানিয়েছে কোন লক্ষণগুলি প্রকাশ পেলে সতর্ক হতে হবে।

লক্ষণ :-

চোখে বা নাকে ব্যথা এবং লাল হয়ে ফুলে যাওয়া

জ্বর

মাথা ব্যথা

কাশি

নিঃশ্বাসের সমস্যা

রক্তবমি

অস্বাভাবিক মানসিক অবস্থা

নাক বন্ধ হয়ে আসা, নাক থেকে চাপা রক্তের মতো বা কালো পুঁজ বেরনো

চোয়ালে ব্যথা, মুখের এক দিকে ব্যথা, অবশ হয়ে যাওয়া বা ফুলে যাওয়া

নাকের উপর কালচে দাগ

দাঁতে ব্যথা বা দাঁত আলগা হয়ে আসা

দৃষ্টি ঝাপসা হয়ে আসা, বা দু’টো করে জিনিস দেখা, জ্বর, ত্বকের সমস্যা

বুকে ব্যথা, নিঃশ্বাসের সমস্য বেড়ে যাওয়া

কী করবেন :-

রক্তে শর্করার মাত্রা নিয়ন্ত্রণ করতে হবে

পুঁজ বেরনোর পর রক্তে শর্করার মাত্রা মাপতে হবে। ডায়াবেটিস রোগীদের ক্ষেত্রেও করতে হবে

সঠিক পরিমাণে এবং ঠিক সময় স্টেরয়েড নিতে হবে

অক্সিজেন থেরাপির সময় পরিষ্কার, স্টেরিলাইজ করা জল ব্যবহার করতে হবে

প্রয়োজনে অ্যান্টিবায়োটিক এবং অ্যান্টি ফাঙ্গাল ওযুধ খেতে হবে

কী করবেন না :- 

লক্ষণগুলি নজরে এলে অবহেলা করবেন না

নাকে কালচে দাগ দেখলেই আতঙ্কিত হবেন না

বিশেষ করে যে কোভিড রোগীদের রোগ প্রতিরোধক ক্ষমতা কম থাকে, তাই তারা সতর্ক থাকবেন

ফাঙ্গাসের উপস্থিতি বুঝতে প্রয়োজনীয় শারীরিক পরীক্ষা করতে ভয় পাবেন না

চিকিৎসা শুরু করতে দেরি করা চলবে না

ভাইরোলজিস্ট শতদল দাস জানিয়েছেন, “সাধারণত শাক, সবজি থেকে ব্ল্যাক ভাইরাস সংক্রমণের সম্ভাবনা নেই সেটা নয়,. তবে সম্ভাবনা খুবিই কম। তাই শাক সবজি বাজার থেকে কিনে এনে ভালো করে গরম জল দিয়ে ধুয়ে নিলে হবে। তবে দু’দিন পাউরুটি বাড়িতে রাখার ফলে তাতে ছত্রাক জন্মে যায়। সেটা খেলে ব্ল্যাক ভাইরাস আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা থাকছে। এমনকি ফ্রিজে বেশিদিন খাবার রেখে দেওয়া উচিত নয়। এর ফলে লাং ইনফেকশন খুব বেশি রকমের হতে পারে। তখন আন্টি ফাঙ্গাল মেডিসিন দিয়েও কাজ হয় না।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.