ডোমকল: বৃহস্পতিবার রাজ্যে চলছে অষ্টম তথা শেষ দফার নির্বাচন। এদিন ভোটের শুরুতেই তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ তুলে সরব হল সংযুক্ত মোর্চা। অভিযোগ ডোমকলে টিএমসি প্রার্থীর গাড়ির ধাক্কায় এক বাম সমর্থকের মৃত্যু হয়েছে ও দুই কংগ্রেস সমর্থক জখম হয়েছেন। ঘটনার পর থেকেই এলাকায় রীতিমতো উত্তেজনার সৃষ্টি হয়।

যদিও তৃণমূলের পক্ষ থেকে সেই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। ডোমকল বিধানসভার ৭৫ নম্বর কেন্দ্রে এই ঘটনা ঘিরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়। সিপিআইএমের বক্তব্য এ ঘটনা ঘটে বুধবার রাতে। অভিযোগ, বুধবার রাতে বেশ কিছু গাড়ি নিয়ে শাহবাজপুরে আসেন তৃণমূলের লোকজন। সেখানে নাকি ছিলেন তৃণমূল প্রার্থী জাফিকুল ইসলামও।

আরও খবর পড়ুন – হাসপাতালে হাসপাতালে অক্সিজেনের সংকট, শ্মশানে লম্বা লাইন

বামেদের অভিযোগ, ইচ্ছাকৃতভাবেই গাড়ি দিয়ে ধাক্কা মারা হয়েছে সিপিআইএম কর্মী আবদুল কাদির মণ্ডলকে। তাঁকে উদ্ধার করে দ্রুত মুর্শিদাবাদ মেডিক্যাল কলেজ এবং হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকেরা মৃত বলে ঘোষণা করেন।

যদিও এ অভিযোগ অস্বীকার করেছেন তৃণমূল প্রার্থী। তাঁর বক্তব্য, তাঁর গাড়িই যে ধাক্কা দিয়েছে এমন কোনও ভিডিয়ো দেখাতে পারলে তিনি অভিযোগ মেনে নেবেন। ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে।

আরও খবর পড়ুন – বিশ্বের দরবারে আবার ঘুরে দাঁড়াবে আমেরিকা, কংগ্রেসের যৌথ অধিবেশনে বার্তা জো- বিডেনের

অন্যদিকে এ ঘটনার পর থেকে ডোমকলে বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সিপিআইএম ও টিএমসির মধ্যে দফায় দফায় সংঘর্ষ বাঁধে। সংযুক্ত মোর্চার বিরুদ্ধে কয়েকজন টিএমসি কর্মীর বাড়ি ভাঙার অভিযোগও ওঠে। অষ্টম দফা নির্বাচনে যেন ডোমকল বোমার আখড়া হয়ে উঠেছে।

করোনার সংক্রমণ-বৃদ্ধির মধ্যেই আজ রাজ্যে চলছে অষ্টম অর্থাৎ শেষ দফার নির্বাচন। চার জেলার ৩৫ আসনে ভোটগ্রহণ।মালদা জেলার ৬টি আসন, মুর্শিদাবাদের ১১,কলকাতার ৭ এবং বীরভূমের ১১টি আসনে আজ ভোটগ্রহণ।আজ কলকাতার চৌরঙ্গি, এন্টালি, বেলেঘাটা, জোড়াসাঁকো, শ্যামপুকুর, মানিকতলা, কাশীপুর-বেলগাছিয়া কেন্দ্রের ভোট গ্রহণ।

আরও খবর পড়ুন – লাগাম টানতে ব্যর্থ, ১৫ মে পর্যন্ত নাইট কার্ফুর মেয়াদ বাড়ল বিহারে

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.