ওয়েলস: মানুষের সঙ্গে সব থেকে সহজে যে প্রাণীর সম্পর্ক তৈরি হয় তা হল কুকুর। নিজের মনিবকে বিপদ থেকে রক্ষা করার জন্য সর্বদা প্রস্তুত থাকে ওই চার পায়ের জীবটি। সম্প্রতি এইরকমই এক ঘটনা ঘটেছে ওয়েলসের লিন্দা মুঙ্কলের সঙ্গে। তাঁর প্রাণাধিক প্রিয় জার্মান শেফার্ডদের জন্য তিনি পেয়েছেন নবজীবন।

লিন্ডা জানিয়েছেন দুই জার্মান শেফার্ড এবং তাদের সন্তান নিয়ে মোট চারটি কুকুর রয়েছে। এবং চারজনেই তাঁর সব থেকে প্রিয়।

একদিন তিনি নিজের বাড়ির সোফাতে বসে থাকাকালীন অবস্থাতে একটি কুকুর আচমকাই তাঁর কাছে উঠে এসে অদ্ভুত ভাবে বুকের কাছে শুঁকতে শুরু করে। তারপরেই নিজের মাথাতে দিয়ে তাঁর বুকে মারতে থাকে বলেও জানিয়েছেন লিন্ডা। এরকম এর আগে সে কখনও করেনি বলে অবাক হয়ে গিয়েছিলেন তিনি। কিন্তু আচমকা এরকম ব্যবহার করাতে কিছু বুঝতে পারেননি। আর এই আক্রমণ বেশ কয়েকমাস ধরে চলেছিল।

দু’মাস পরে তার কুকুরের এহেন অদ্ভুত ব্যবহারের কারণ জানার জন্য ডাক্তারের কাছে গিয়েছিলেন। ডাক্তার পরীক্ষা করে জানিয়েছিলেন তিনি ব্রেস্ট ক্যান্সারের শিকার। তবে তা প্রাথমিক পর্যায়ে। অর্থাৎ চিকিৎসার ফলে তা সেরে যাওয়া সম্ভব।

লিন্ডা দ্রুত তাঁর চিকিৎসা শুরু করেছিলেন। বর্তমানে সুস্থ রয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন তাঁর কেমোথেরাপি চলাকালীন কুকুরেরা চুপচাপ তাঁর কাছে বসে থাকত। তাঁর ডাক্তার জানিয়েছেন কেবলমাত্র তাঁর কুকুরের জন্যই এটি সম্ভব হয়েছে। তাই তাদের একটা ধন্যবাদ প্রাপ্য।