তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: জেলা প্রশাসনের ‘সহমর্মী’ প্রকল্পের বাস্তবায়নে ফের পথে নামলেন বাঁকুড়া জেলাশাসক ডাঃ উমাশঙ্কর এস। শনিবার ওন্দার বিডিও বিমল কুমার শর্মা, ব্লক ও পঞ্চায়েত সমিতির আধিকারিক ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের সঙ্গে নিয়ে তিনি রতনপুর এলাকার ঘোলকুণ্ডা, ডুমুরিয়া গ্রাম এলাকা ঘুরে দেখেন। কথা বলেন সাধারণ মানুষের সঙ্গে।

 

একই সঙ্গে এলাকার বেশ কয়েক জন বৃদ্ধ বৃদ্ধার সঙ্গে দেখা করে তাদের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত খোঁজ খবর নিতেও দেখা গেছে জেলাশাসককে। এই ধরণের ঘটনা তাদের দীর্ঘ জীবনে এই প্রথম বলেই অনেকে জানিয়েছেন। এদিন জেলাশাসকের নেতৃত্বে এই প্রতিনিধি দলটি ঐ এলাকার আইসিডিএস কেন্দ্রের খাবারের গুণগত মান খতিয়ে দেখেন৷

এদিন জেলাশাসক কথা বলেন শিশু শিক্ষার্থী ও সংশ্লিষ্ট কর্মীর সঙ্গেও। এছাড়াও জেলাশাসক স্কুলে যাওয়ার পথে স্থানীয় ছাত্র ছাত্রীদের দাঁড় করিয়ে তাদের সঙ্গেও আলাদা করে কথা বলেন। তাদের শিক্ষা সংক্রান্ত নানান কথা, সমস্যা, বাবা মা কি করেন, সরকারী সুযোগ সুবিধা ঠিকঠাক মেলে কিনা খোঁজ নেন। একই সঙ্গে জেলাশাসক সাধারণ মানুষের সঙ্গেও কথা বলেন।

জেলাশাসককে একদম সামনে পেয়ে নানান সমস্যা তুলে ধরেন গ্রামবাসীরা। গ্রামবাসীরা জেলাশাসকে গ্রামীণ রেশন ব্যবস্থা সম্পর্কে অভিযোগ জানালে তৎক্ষণাৎ তিনি বিষয়টি স্থানীয় বিডিওকে দেখার নির্দেশ দেন। জেলাশাসকের এই ধরণের ‘সারপ্রাইজ ভিজিটে’ খুশি এলাকার মানুষ।

জেলাশাসক ডাঃ উমাশঙ্কর এস বলেন, ওন্দা ব্লকের রতনপুর এলাকার গ্রামগুলি ঘুরে দেখলাম। সরকারি পরিষেবা সবাই ঠিক ঠাক পাচ্ছেন কিনা তা দেখার পাশাপাশি আর কি প্রয়োজন তা খোঁজ নিয়ে তিনি দেখেছেন বলে জানান। একই সঙ্গে জেলাশাসক বলেন, তিনি খুশি, তবে কয়েকটা ছোটো খাটো সমস্যার কথা সাধারণ মানুষের কাছ থেকে উঠে এসেছে। ঐ সমস্যা দ্রুত সমাধানের জন্য তিনি স্থানীয় বিডিওকে নির্দেশ দিয়েছেন বলে জানান।