স্টাফ রিপোর্টার, মালদহ: নির্বাচন প্রক্রিয়াকে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে মালদহর জেলাশাসক ও পুলিশ সুপার। তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে কাজ করছে এই দুই পদস্থ আধিকারিক। নির্বাচন কমিশনে এমনটাই অভিযোগ জানালেন মালদহ জেলা কংগ্রেসের সভাপতি মোস্তাক আলম।

আরও পড়ুন- লোকসভার লড়াইকে ভারত-পাক যুদ্ধের সঙ্গে তুলনা তমলুকের বিজেপি প্রার্থীর

শুক্রবার সাংবাদিক বৈঠক করে তিনি বলেন, তৃণমূলের হয়ে ভোট প্রচারে সেলফ হেল্প গ্রুপকে ব্যবহার করছে মালদহর জেলাশাসক। এমনকি কংগ্রেস সভা করতে চাইলে অনুমতি নিয়ে তালবাহানা করছে৷ কিন্তু শাসক দলের সমাবেশ সভার অনুমতি হয়ে যাচ্ছে।

আরও পড়ুন- মৌসমকে টেক্কা দিতে গোরুর গাড়ি ছেড়ে মাঠে নামলেন ঈশা খান

জেলা পুলিশ সুপারের বিরুদ্ধে ক্ষোভ জানিয়ে বলেন, বেছে বেছে কংগ্রেস কর্মীদের বিরুদ্ধে ১০৭ ধারায় কেস করা হচ্ছে। কার্যত শাসক দলের হয়ে কাজ করছে তারা। তাই এই দুই পদস্থ আধিকারিককে নির্বাচন প্রক্রিয়া থেকে সরিয়ে দেওয়ার জন্য নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছেন তারা।

আরও পড়ুন- ভোটে ভাঙড়: প্রকাশ্যে আরাবুলকে হুঁশিয়ারি রেড স্টার নেত্রী শর্মিষ্ঠার

যদিও এই অভিযোগের প্রেক্ষিতে মালদহ জেলার তৃণমূল কংগ্রেস কমিটি সদস্য শুভময় বসু বলেন, জেলাশাসক ও পুলিশ সুপার এখন নির্বাচন কমিশনের অধীনে। তাই কার বিরুদ্ধে কেস হবে না হবে সেটা নির্বাচন কমিশনের নির্দেশ মেনে হচ্ছে।

আরও পড়ুন- সরকারি চিকিৎসক প্রার্থীকে ভোটে অংশগ্রহণ করার অনুমতি হাইকোর্টের

তবে সেলফ হেল্প গ্রুপ-এর মহিলাদের জন্য একাধিক উন্নয়নমুখী প্রকল্প গ্রহণ করেছেন বাংলার মুখ্যমন্ত্রী৷ তাই তারা স্বেচ্ছায় শাসক দলের হয়ে ভোট প্রচার করছেন। এই বিষয়ে জেলাশাসক কৌশিক ভট্টাচার্য ও জেলা পুলিশ সুপার অর্ণব ঘোষ-এর কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি।