ওহিও: দিনদু’য়েক আগে ইন্দ্রপতনের সাক্ষী থেকেছিল যুক্তরাষ্ট্রের সিনিসিনাটি মাস্টার্স। রাশিয়ার ২১ বছরের আন্দ্রে রুবলভের কাছে হেরে প্রি-কোয়ার্টার থেকেই বিদায় নিয়েছিলেন রজার ফেডেরার। রবিবার সেমিফাইনালে নবম বাছাই ড্যানিল মেদভেদেভের কাছে হেরে সিনসিনাটি মাস্টার্সে দৌড় থামল বিশ্বের পয়লা নম্বর নোভাক জকোভিচের। প্রথম সেট হেরেও সার্বিয়ান টেনিস মায়েস্ত্রোকে এদিন শেষ চারের লড়াইয়ে মাটি ধরালেন রাশিয়ান মেদভেদেভ। ১ ঘন্টা ৪২ মিনিটের লড়াইয়ে জকোভিচের বিপক্ষে ম্যাচের ফল ৬-৩, ৩-৬, ৩-৬।

রাশিয়ান প্রতিদ্বন্দ্বীর বিরুদ্ধে পরিষ্কার ফেভারিট হয়েই এদিন মাঠে নেমেছিলেন চলতি বছর অস্ট্রেলিয়া ওপেন ও উইম্বলডন জয়ী জকোভিচ। কিন্তু রবিবারের অপ্রত্যাশিত হার ইউএস ওপেন শুরুর আগে চিন্তা বাড়াবে সার্বিয়ান টেনিস মায়েস্ত্রোর। তবে সিনসিনাটি মাস্টার্সে সেমিফাইনালের শুরুটা প্রত্যাশিত ঢঙেই করেছিলেন বিশ্বের পয়লা নম্বর। প্রথম সেট ৬-৩ ব্যবধানে পকেটে পুড়ে রাশিয়ান প্রতিদ্বন্দ্বীকে হুঙ্কার ছুঁড়ে দেন জোকার। দ্বিতীয় সেটেও একসময় ৩-২ ব্যবধানে এগিয়েছিলেন ১৬টি গ্র্যান্ডস্লামের মালিক।

এমন অবস্থা থেকে স্বপ্নের কামব্যাক করেন নবম বাছাই মেদভেদেভ। তুখোড় সার্ভিস, আগ্রাসী টেনিসে শীর্ষ বাছাই জকোভিচের ছন্দ নষ্ট করে দেন রাশিয়ান প্রতিদ্বন্দ্বী। ৩-২ ব্যবধানে পিছিয়ে থেকে ৬-৩ ব্যবধানে দ্বিতীয় সেট নিজের নামে করে নেন জকোভিচের রাশিয়ান প্রতিদ্বন্দ্বী। তৃতীয় তথা নির্ণায়ক সেটেও মেদভেদেভের সেই গতিময় আগ্রাসী টেনিস বজায় থাকে। যার কোনও উত্তর ছিল না জকোভিচের কাছে। শেষমেষ ৬-৩ ব্যবধানে তৃতীয় সেটও নিজের নামে করে সিনিসিনাটি মাস্টার্স কব্জা করে নেন ড্যানিল মেদভেদেভ।

ম্যাচ হারের পর রাশিয়ান প্রতিদ্বন্দীর প্রশংসায় পঞ্চমুখ জকোভিচ জানান, ‘বিশ্বের অন্যতম সেরা প্লেয়ার ও।’ সিনসিনাটি মাস্টার্সের সেমিতে হার কিছুটা হলেও ইউএস ওপেনের আগে সতর্ক করে দিয়ে গেল। উত্তরে জকোভিচ জানান, ম্যাচ থেকে তিনি সবকিছু ইতিবাচক বিষয়ই গ্রহণ করেছেন তিনি। তাঁর সংযোজন, ‘আমি এমন একজনের কাছে হেরেছি যে দুর্দান্ত টেনিস খেলছিল। আমি আমার হারকে সাদরে গ্রহণ করেই নিউ ইয়র্ক রওনা দেব। প্রস্তুতি হিসেবে সপ্তাহটা ভালোই কাটল এখানে।’