মাদ্রিদ: মারিন চিলিচ সরে দাঁড়ানোই বিনা লড়াইয়ে মাদ্রিদ ওপেনের সেমিফাইনালে পৌঁছে গেলেন নোভাক জকোভিচ৷ ফাইনালে ওঠার লড়াই রজার ফেডেরার ও ডোমিনিক থিয়েমের জয়ীর বিরুদ্ধে কোর্টে নামবেন জোকার৷

তৃতীয় মাদ্রিদ খেতাবের নজরে জকোভিচ৷ কোচ হিসেবে ভাই মার্কো জকোভিচকে পেয়েছেন জোকার৷ সহকারী কোচ হিসেবে কাজ করছেন মার্কো৷ খেলোয়াড় হিসেবেও মন্দ ছিলেন না জোকারের ভাই৷ কেরিয়ারে ব়্যাংকিংয়ে সর্বোচ্চ ৩২৩-এ পৌঁছেছিলেন মার্কো৷ এখন মার্বেলা অ্যাকাডেমিকে কোচিং করান তিনি৷ এখানেই বেশিরভাগ সময় ট্রেনিং করেন নোভাক৷

মাদ্রিদ ওপেনের শেষ চারে পৌঁছে নোভাক বলেন, ‘ট্যুরে পরিবারের কেউ থাকাটা দারুন ব্যাপার৷ কোচ মারিয়ান সবসময় আমার সফরসঙ্গী হতে পারে না৷ সুতরাং কাউকে দরকার হয়৷ কেরিয়ারের এই সময় ভাইকে পাশে পেয়ে দারুণ লাগচ্ছে৷’ তবে অতীতেও ভাই মার্কোর সঙ্গে ট্রেনিং করেছেন নোভাক৷ তিনি বলেন, ‘মার্কোর সঙ্গে আগেও ট্রেনিং করেছি৷ ডাবলসে এক সঙ্গে খেলেছি৷ আর এখনও ও আমার কোচ৷ এটা অন্য অনুভূতি৷’

বিশ্বের এক নম্বর জকোভিচ মরশুম শুরু করেছে অস্ট্রেলিয়া ওপেন জিতে৷ কিন্তু তার পর তিনটি ইভেন্টের কোনওটিতে সেমিফাইনালে পৌঁছেতে পারেননি৷ মাদ্রিদ ওপেনের শেষ চারে পৌঁছে তাই উচ্ছ্বসিত জোকার৷ কোয়ার্টার ফাইনালের লড়াইয়ে এদিন পেটের সমস্যায় সরে দাঁড়ান চিলিচ৷

টুইটারে সরে দাঁড়ানোর কথা জানান ক্রোয়েশিয়ান খেলোয়াড়৷ চিলিচ লেখেন, ‘ডিয়ার ফ্যান, মাদ্রিদ ওপেন সংগঠক এবং নোভাক জকোভিচ দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি, আজকের ম্যাচ থেকে আমি সরে দাঁড়াতে বাধ্য হচ্ছি৷ রাতে খাবারের বিষক্রিয়ার কারণে পেটের সমস্যায় ভুগচ্ছি৷ মাদ্রিদকে বিদায় জানানোয় হতাশ৷ তবে আমাকে সাপোর্ট করার জন্য ধন্যবাদ৷’