স্টাফ রিপোর্টার, তমলুক: রাত পোহালেই দেবীপক্ষের সূচনা৷ তার আগেই জেলার ৫০ জন কবির কবিতা নিয়ে প্রকাশিত হল ‘অক্ষরে ধোয়া জীবন’ নামে একটি গ্রন্থ। রবিবার বিকেলে পূর্ব মেদিনীপুরের হাউর গ্রামে গ্রন্থলোক পাঠাগারে একটি অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে এই গ্রন্থটি প্রকাশ করা হয়৷ এদিন ঈশ্বরচন্দ্র বিদ্যাসাগরকে নিয়ে কবি শিশিরকুমার বাগের লেখা ‘অর্ঘ্য’ নামে একটি গ্রন্থও প্রকাশ করা হয় এই অনুষ্ঠানে৷

আরও পড়ুন: ঝাড়গ্রামের এই গাঁয়ে বিশালাকার তলোয়ারেই দেবী দুর্গার অধিষ্ঠান

শুভঙ্কর দাস ও সৌরভকুমার ভূঁইয়ার উদ্যোগে ‘অক্ষরে ধোয়া জীবন’ নামে গ্রন্থটি প্রকাশিত হয় এদিন৷ এই গ্রন্থটি প্রকাশ করেন ব্যাকরণবিদ কালিপদ চৌধুরি৷ গ্রন্থের সম্পাদক শুভঙ্কর দাস ও সৌরভকুমার ভূঁইয়া বলেন, ‘‘বর্তমান সময়ে সমাজের অবক্ষয়কে দূর করার জন্য সাহিত্য চর্চার প্রয়োজনীয়তা রয়েছে৷

বিকেলে আড্ডার আসরে জেলার ৫০ জন কবির কাছ থেকে ৬ টি করে কবিতা নিয়ে মোট ৩০০ টি কবিতার সংকলনে গ্রন্থটি প্রকাশিত হয়। সম্পাদকরা জানান, আমাদের দীর্ঘদিনের ইচ্ছে ছিল জেলার প্রান্তিক কবিদের লেখা কবিতা নিয়ে একটি গ্রন্থ প্রকাশ করার। আজ সেই ইচ্ছে পূরণ করতে পেরে খুব ভালো লাগছে।’’

আরও পড়ুন: উত্তমকুমারের ‘দুর্গতিহারিণী’ জামানত খুইয়েছিল বীরেন্দ্রকৃষ্ণের ‘মহিষাসুরমর্দিনী’র কাছে

অন্যদিকে, মহিষাদলের পায়োনিয়র ক্লাবের প্রেক্ষাগৃহে কবি হরপ্রসাদ সাহুয়ের সম্পাদনায় ‘এবং কবিতা হলদিয়া’ নামে একটি গ্রন্থের প্রকাশ হয়। এদিনের গ্রন্থ প্রকাশ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন শিক্ষাবিদ ও সাহিত্যিক হরিপদ মাইতি, সমাজসেবী রঘুনাথ পাণ্ডা, কবি ও সাহিত্যিক নীলোৎপল জানা সহ অন্যান্যরা৷ সব মিলিয়ে মহালয়ার আগের দিন এই গ্রন্থগুলি প্রকাশ হওয়ায় বেশ উৎসাহিত গ্রন্থ প্রেমীরা৷