স্টাফ রিপোর্টার, বর্ধমান: বাম ছেড়ে রামের উপাসক হয়েছেন আইনুল হক৷ আর তাতেই আপত্তি বর্ধমানের বিজেপি কর্মীদের একাংশের৷ পোস্টার দিয়ে একদা সিপিএমের দোর্দদণ্ডপ্রতাপ এই নেতার দলে আগমণের বিরোধীতা করা হয়েছে৷

এসবের পিছনে অবশ্য চক্রান্তের গন্ধ পাচ্ছে গেরুয়া শিবির৷ তারা মনে করছে আইনুল হকের দল বদলে ভয় পেয়েছে তৃণমূল৷ তাই কুৎসা রটাতেই তারাই এই পোস্টার সাঁটিয়েছে৷ কিন্তি খোদ আইনুল আবার এর জন্য দায়ী করেছেন পুরনো দল সিপিএমকেই৷

শনিবারই কলকাতার জাতীয় গ্রন্থাগারে বিজেপির সভা ছিল৷ রাজ্য নেতাদের সঙ্গে ছিলেন দলের কেন্দ্রীয় নতৃত্বও৷ োই সভাতেই বিজেপিতে যোগ দেন সিপিএমের বর্ধমান জেলার দাপুটে সংখ্যালঘু নেতা ও বর্ধমান পুরসভার চেয়ারম্যান আইনুল হক৷ ওই দিন রাতেই তিনি জেলায় ফিরে যান৷

দলবদলের ২৪ ঘন্টাও কাটেনি৷ দল বদলী আইনুলকে ঘিরে বর্ধমান শহরের কার্জন গেট এলাকায় পোস্টার পড়তে শুরু করেছে৷ একাধিক পোস্টার কোনটিকে লেখা, গণহত্যাকারী আরএসএস হত্যাকারী আইনুল হকের বিজেপিতে কোনো ঠাঁই নেই৷ আবার কোনটিতে লেখা রয়েছে, আইনুল তুমি শুনে নাও, বিজেপি তুমি ভুলে যাও৷

বর্ধমানের বিজেপি নেতা শ্যামল রায় দলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন৷ এটা সম্পূর্ণভাবেই শাসকদলের চক্রান্ত বলে দাবী তাঁর। আইনুল হক বিজেপিতে যোগ দেওয়ায় তারা ভয় পেয়েই এই কুত্সার রাজনীতি করছে বলে মনে করেন তিনি। উলটো সুর অবশ্য আইনুলের গলায়৷ তাঁর নিশানায় সিপিএম৷

আইনুলকে এনে সংগঠন মজবুতের কতা ভেবেছিল পদ্ম বাহিনী৷ কিন্তু এতো শুরুতেই সংকট৷ আইনুলকে ঘিরেই তো বিজেপিতে এখন দ্বন্দ্বের কাঁটা৷ পদ্ম ফোটাতে গিয়ে যা কাঁটা হয়ে বিঁধতে পারে বিজেপিকে৷