মুম্বই: সুশান্ত সিং রাজপুতের প্রাক্তন ম্যানেজার দিশা সালিয়ানের মৃত্যুর রাতে ঠিক কী হয়েছিল? মুম্বই পুলিশ জানিয়েছে দিশা বহুতল থেকে ঝাঁপ দিয়ে আত্মঘাতী হয়েছেন। কিন্তু অনেকেই মনে করছেন কী ভাবে একজন পার্টিতে আনন্দ করতে করতে আত্মঘাতী হন? সুশান্তের মৃত্যুর সঙ্গেও এর যোগ রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে। সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডের হাতে এসেছ দিশা সালিয়ানের এক বন্ধুর হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট। সেখান থেকেই জানাযাচ্ছে সেই রাতে ঠিক কী হয়েছিল।

ওই হোয়াটসঅ্যাপ মেসেজ থেকে জানা যাচ্ছে, দিশা তাঁর বন্ধু ও ফিয়ন্সের সঙ্গে সেদিন পার্টি করছিলেন। পার্টিতে মাত্রাতিরিক্ত মদ্যপান করেছিলেন তিনি। আর তার পরে নাকি অবসাদগ্রস্ত হয়ে পড়েন তিনি। মদ্যপ অবস্থায় বলতে থাকেন, কেউ কারও জন্য ভাবিত নয়। তখন এক বন্ধু দিশাকে পার্টির মেজাজ নষ্ট করতে না করেন। তখনই দিশা ঘরে ঢুকে তা ভিতর থেকে লক করে দেন।

বহুক্ষণ কোনও সাড়া না পেয়ে তাঁকে ডাকা হয়। তিনি সাড়া না দিলে ফিয়ন্সে ও অন্যান্য বন্ধুরা দরজা ভেঙে ঢোকেন। দেখেন ব্যালকনি থেকে ঝাঁপ দিয়েছেন দিশা। সঙ্গে সঙ্গে তাঁরা ছুটে নীচে যান। তখনও দিশা জীবিত ছিলেন। কিন্তু হাসপাতালে নিয়ে যেতে তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়।

দিশার কলেজের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপেও এই মেসেজটি শেয়ার করা হয়। পুলিশ খতিয়ে দেখে জানতে পেরেছে এই গ্রুপটি বৈধ। প্রসঙ্গত, দিশা একটি ট্যালেন্ট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানিতে কাজ করতেন। তিনি সুশান্ত সিং রাজপুতের ম্যানেজার হিসেবেও কাজ করেছেন। পুলিশের দাবি দিশা আত্মঘাতী হয়েছেন অথবা নিয়ন্ত্রণ না রাখতে পেরে পড়ে গিয়েছেন ১৪ তলা থেকে। এই ঘটনার ৬ দিন পরেই মৃত্যু হয় সুশান্ত সিং রাজপুতের। আর তার পর থেকেই দুটি মৃত্যুর মধ্যে নানা যোগের সন্ধান করেছেন অনেকে।

উল্লেখ্য, এই হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটটি ইন্ডিয়া টুডে পেয়েছে বলে তাদের প্রতিবেদনে দাবি করেছে। সেই তথ্যের উপর নির্ভর করেই এই প্রতিবেদন।

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা