স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: ডেঙ্গু ইস্যুতে রাজ্যের শাসক দলের কড়া সামলোচনা করলেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ৷ কেন্দ্রের পাঠান অর্থের তথ্য সংবাদ মাধ্যমের সামনে প্রকাশ করে তিনি প্রমাণ করার চেষ্টা করলেন ডেঙ্গু রুখতে রাজ্য সরকার কতটা ব্যর্থ৷ পাশাপাশি ডেঙ্গু নিরাময়ে রাজ্যের তৃণমূল সরকারের কোনও সদিচ্ছা নেই বলেও জানিয়েছেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি৷

শুক্রবার সাংবাদিক সম্মেলনে বিজেপি রাজ্য সভাপতি পতঙ্গ বা পশু বাহিত রোধ নিরাময়ে গত দু’বছরে ও চলতি বছরে কেন্দ্রের পাঠান কত পরিমাণ টাকা রাজ্য সরকার খরচ করতে পারেনি৷ তা ফেরত গিয়েছে কেন্দ্রের কাছে৷ দিলীপ ঘোষের দেওয়া তথ্যে বলা হয়েছে, ২০১৫-১৬ অর্থবর্ষে ফেরত গিয়েছে ২২ কোটি টাকা এবং ২০১৬-১৭ অর্থ বর্ষে সেই টাকার পরিমাণ ১৯ কোটি৷ কেন্দ্রের পক্ষ থেকে পতঙ্গ ও পশু বাহিত রোগ নিরাময়ে চলতি বছরের পাঠান হয়েছে ১৯.৪ কোটি টাকা৷ ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত রাজ্য সরকার খরচ করতে পেরেছে ৫.৪ কোটি টাকা৷

এছাড়া দিলীপ ঘোষ তাঁর অভিযোগে জানিয়েছেন, চিকিৎসকদের প্রশিক্ষণের জন্য গত বছর কেন্দ্রের পক্ষ থেকে রাজ্য সরকারকে পাঠান হয়েছিল ২৫ লক্ষ টাকা৷ যার পুরোটাই ফেরত গিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি৷ বিজেপির রাজ্য সভাপতি আরও অভিযোগ করেছেন, ডেঙ্গু রোধে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে গত বছরে পাঠান হয়েছিল ২.৫ কোটি টাকা, যার মধ্যে খরচ হয়েছে মাত্র ৫ লাখ টাকা এবং সচেতনতা প্রচারে কেন্দ্রের পক্ষ থেকে পাঠান হয়েছিল ১.৫ কোটি টাকা, যার মধ্যে খরচ হয়েছিল ১.২৬ কোটি টাকা৷

শুক্রবার ডেঙ্গু সংক্রান্ত মামলায় হাইকোর্টের ভর্ৎসনার মুখে পড়তে হয়েছে রাজ্য সরকারকে৷ উচ্চ আদালতের তরফে রাজ্যের পেশ করা রিপোর্টের বিশ্বাসযোগ্যতা নিয়েই প্রশ্ন তোলা হয়েছে৷ সেই বিষয়টিকে সামনে এনে বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ জানিয়েছেন, বারবার হাইকোর্টে মুখ পুরছে রাজ্য সরকারের৷ এমনকি ডেঙ্গুকে মৃতের হার নিয়ে তথ্য গোপন করছে রাজ্যের ক্ষমতাসীন সরকার তাও অভিযোগ করেছেন তিনি৷

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ