কলকাতা- ছোটপর্দায় মহানায়ক উত্তম কুমারের জীবন নিয়ে কাজ হয়েছে। কিন্তু সেখানে মহানায়কের ব্যক্তিগত জীবনের উপরেই বেশি আলোকপাত করা হয়েছে। এবং অনেক কিছুই অতিরঞ্জিত করে দেখানো হয়েছে। এমনই দাবি করেছেন পরিচালক প্রবীর রায়। তাই আসলে মহানায়ক কেমন ছিলেন, তা ছবির মাধ্যমে তুলে ধরতে চলেছেন তিনি। ছবির নাম যেতে নাহি দিব।

এক সময়ে উত্তম কুমারের ভক্ত ছিলেন তিনি। মহানায়কের সান্নিধ্যও পেয়েছেন তিনি। তাই এবার নিজের অভিজ্ঞতাকেই চিত্রায়িত করার উদ্যোগ নিয়েছেন তিনি। ছবিতে উত্তম কুমারের ভূমিকায় দেখা যাবে সুজন মুখোপাধ্যায়কে। এই ছবি মূলত মহানায়ককে উৎসর্গ করেই তৈরি করছেন বলে জানান পরিচালক।

যেতে নাহি দিব-তে উত্তম কুমারের সঙ্গে যে অভিনেত্রীরা কাজ করেছেন তাঁদেরও বেশ কিছু অংশ রয়েছে। সুপ্রিয়া দেবী, সুচিত্রা সেন, মাধবী মুখোপাধ্যায়, সাবিত্রী চট্টোপাধ্যায়, কানন দেবী-সহ আরও অনেককেই এই ছবিতে তুলে ধরেছেন পরিচালক। কানন দেবীর চরিত্রে দেখা যাবে শকুন্তলা বড়ুয়াকে।

যেহেতু পরিচালক প্রবীর রায় উত্তম কুমারের সঙ্গে বেশ কিছু সময় কাটিয়েছেন, তাই মহানায়কের সঙ্গে জড়িত একটি মজার অভিজ্ঞতাও শেয়ার করে নেন কলকাতা ২৪x৭-এর সঙ্গে। পরিচালক বলেন, “উত্তম কুমারের বাড়িতে শনিবার রবিবার আড্ডা বসত। আমি একবার রবিবার দুপুর বারোটা থেকে রাত দেড়টা পর্যন্ত উত্তমদাকে আধ ঘণ্টা অন্তর পাঞ্জাবি বদলাতে দেখেছিলাম। এসি ঘর ছিল। অতএব ঘেমে যেতেন বলে নয়। ওটা ওনার ভালো লাগত। আমার নিজের চোখে দেখা। বেণুদি একটি করে পাঞ্জাবি নিয়ে আসতেন আর তিনি বদলে ফেলতেন। আর তিনি আড্ডায় খুব মজা করতেন।”

পরিচালক এছাড়াও বলছেন, “উত্তম কুমারের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে অনেকের অনেক আগ্রহ রয়েছে। কিন্তু তাঁর ব্যক্তিগত জীবন যাই হোক, তিনি উত্তম কুমার। তাই এই ছবিতে কোনও স্ক্যান্ডাল নেই। তাঁর কাজের উপর আলোকপাত করেই যেতে নাহি দিব উত্তম কুমারকে উৎসর্গ করা হয়েছে।”