প্যারিস: দীর্ঘদিন ধরে ফসিল হয়ে পড়েছিল সেই হাড়। অবশেষে কোটো কোটি বছর আগের সেই হাড়ের সন্ধান পেলেন বিজ্ঞানীরা।

ফ্রান্সের দক্ষিণ-পশ্চিমাংশের নুভেল আকিতেন অঞ্চলের শ্যারান্ট এলাকার একটি জায়গায় মাটি খুঁড়ে অতিকায় একটি হাড় আবিষ্কার করেছেন প্রত্নবিদরা। এটি ডাইনোসরের থাইয়ের হাড় বলে মনে করা হচ্ছে। হাড়টির ওজন প্রায় ৫০০ কেজি।

জানা গিয়েছে, খননক্ষেত্র-সংলগ্ন কনিয়াক শহরটি ১৪ কোটি বছর আগে জলাভূমি ছিল। এসব এলাকায় ওই তৃণভোজী ডাইনোসররা বসবাস করত বলে মনে করা হচ্ছে। ডাইনোসরের হাড়ের সন্ধান পাওয়া আঁজেক শ্যারন্ট নামের এ খননক্ষেত্রটি সারা ইউরোপের মধ্যেই উল্লেখযোগ্য। ২০১০ থেকে এখনও পর্যন্ত এই এলাকা থেকে ৪৫ টি প্রজাতির ডাইনোসরের প্রায় সাড়ে সাত হাজার অস্থি পেয়েছেন প্রত্নজীবাশ্মবিদরা।

নতুন আবিষ্কৃত ঊরুর হাড় প্রসঙ্গে অঙ্গুলেম জাদুঘরের অধ্যক্ষ জ্যঁ ফ্রাসোয়া তোর্নোপিশ উচ্ছ্বাসের সঙ্গে স্থানীয় সংবাদ মাধ্যমে বলেন, ‘এটি বিশাল আকারের। খুবই ব্যতিক্রমীভাবে এটি মাটির নিচে সংরক্ষিত অবস্থায় ছিল।’

প্যারিসের প্রাকৃতিক ইতিহাসবিষয়ক জাতীয় জাদুঘরের স্বেচ্ছাসেবীরা ঊরুর এ হাড়টির পাশাপাশি মাটির ওই একই স্তরে অতিকায় একটি পেলভিক বোন আবিষ্কার করেন।

প্রত্নজীবাশ্মবিদরা আঁজেক শ্যারন্টে এ যাবত খুঁজে পাওয়া বিভিন্ন হাড়ের অংশ জোড়া লাগিয়ে একটি পূর্ণাঙ্গ সরপড ডাইনোসরের কংকাল তৈরির চেষ্টা করছেন। এরই মধ্যে কঙ্কালের প্রায় ৫০ শতাংশ অবয়ব দাঁড় করানো সম্ভব হয়েছে।