ইম্ফল: এক মাসেরও বেশি সময় ধরে লড়াইয়ের পর করোনাকে জয় করলেন এশিয়াডে সোনাজয়ী বক্সার ডিঙ্কো সিং। ক্যান্সার চিকিৎসার মাঝেই মে মাসের শেষদিকে মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছিলেন ১৯৯৮ ব্যাংকক এশিয়ান গেমসে সোনাজয়ী বক্সার ডিঙ্কো সিং। শুক্রবার ডিঙ্কোর করোনা মুক্ত হওয়ার ঘটনা সোশ্যাল মিডিয়ায় জানালেন মণিপুরের মুখ্যমন্ত্রী এন বীরেন।

করোনা পজিটিভ হওয়ার পর একমাসেরও বেশি সময় ধরে ইম্ফলের রিজিওনাল ইনস্টিটিউট অফ মেডিক্যাল সায়েন্সে চিকিৎসাধীন ছিলেন মণিপুরের এই বক্সার। ক্যান্সার আক্রান্ত হওয়ায় ডিঙ্কোর কোভিড১৯ চিকিৎসার বিষয়টি চিকিৎসকদের কাছে ছিল একটা বড়সড় চ্যালেঞ্জ। একমাসেরও বেশি নিরন্তর প্রয়াসের পর অবশেষে সফল তারা। মণিপুরের মুখ্যমন্ত্রী এক টুইটবার্তায় এদিন লেখেন, ‘খুব ভালো খবর যে বক্সিং আইকন এশিয়ান গেমসে সোনাজয়ী ডিঙ্কো সিং করোনা মুক্ত হয়েছেন। চিকিৎসক এবং স্বাস্থ্যকর্মীদের অনেক ধন্যবাদ যারা দুঃসময়ে তাঁর খেয়াল রেখেছেন সবসময়।’

হাসপাতাল থেকে বাড়ি ফিরে আপাতত ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন এই বক্সার। পাঁচ-পাঁচটি পজিটিভ রিপোর্টের পর তাঁর ষষ্ঠ করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে। পিটিআই’কে অভিজ্ঞতার কথা জানাতে গিয়ে ডিঙ্কো বলেছেন, ‘গত একমাস ভীষণ কঠিন ছিল আমার জন্য। যে সকল চিকিৎসক এবং নার্স আমায় সেবা করেছেন তাদের কোনও ধন্যবাদই যথেষ্ট নয়। আমি তাদের কাছে আজীবন ঋণী হয়ে থাকব। তবু আমি ধন্যবাদ জানাতে চাই তাদের।’

উল্লেখ্য, ক্যান্সার চিকিৎসায় রেডিয়েশন থেরাপির জন্য এপ্রিলের শেষদিকে দিল্লি নিয়ে যাওয়া হয় ডিঙ্কোকে। রেডিয়েশন থেরাপি নিয়ে দিল্লি থেকে মণিপুরের উদ্দেশ্যে রওনা দেওয়ার আগে ডিঙ্কোর শরীরে করোনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ আসে। ঘরে ফেরার পর করোনা আক্রান্ত হন তিনি যদিও শরীরে জন্ডিসের কারণে রেডিয়েশন থেরাপির প্রক্রিয়াও সম্পূর্ণ করা যায়নি ডিঙ্কোর শরীরে। দিল্লিতে যে হাসপাতালে ডিঙ্কো ভর্তি ছিলেন সেই হাসপাতালের এক নার্সের শরীরে করোনা সংক্রমণ হওয়ায় মণিপুর ফেরার আগে করোনা পরীক্ষা হয় ডিঙ্কোর। সেখানে ফল নেগেটিভ আসলেও অ্যাম্বুলেন্সে ঘরে ফেরার পথেই অর্জুন-পদ্মশ্রী সম্মানে ভূষিত বক্সারের শরীরে করোনা সংক্রমণ হয়েছে বলে মনে করা হয়।

ক্যান্সার চিকিৎসার জন্য গত মার্চে রেডিয়েশন থেরাপি নেওয়ার কথা থাকলেও লকডাউনের ফলে চিকিৎসার জন্য দিল্লি যেতে পারছিলেন না ডিঙ্কো সিং। উপায় না দেখে এপ্রিলের শেষদিকে তাঁর পরিবারের পক্ষ থেকে কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রকের সাহায্য চাওয়া হয়। সাড়া মেলে শীঘ্রই। এরপর তাঁর চিকিৎসার ভার তুলে নেয় বক্সিং ফেডারেশন অফ ইন্ডিয়া। বিএফআই-এর উদ্যোগেই ২৫ এপ্রিল এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে ডিঙ্কোকে রেডিয়েশন থেরাপির জন্য উড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয় দিল্লিতে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ