বার্মিংহ্যাম: অবশেষে বিশ্বকাপ খেলার স্বপ্নপূরণ দীনেশ কার্তিকের৷ ১৫ বছর আগে ওয়ান ডে অভিষেক হয়েছিল মঙ্গলবার বিশ্বকাপে প্রথমবার মাঠে নামলেন টিম ইন্ডিয়ার এই তামিল উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান৷ মঙ্গলবার বার্মিংহ্যামে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ভারত দলে তিন উইকেটকিপার রাখায় বিশ্বকাপে অভিষেক হয় ডিকে’র৷

চলতি বিশ্বকাপের প্রথম সাতটি ম্যাচে একাদশে সুযোগ ঘটেনি৷ তবে এজবাস্টনে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে কেদার যাদবের পরিবর্তে কার্তিককে খেলানোর সিদ্ধান্ত নেয় ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট৷ ফলে মহেন্দ্র সিং ধোনি ও ঋষভ পন্তের সঙ্গে খেলার সুযোগ হয় কার্তিকেরও৷ টি-২০ ক্রিকেটে ভারতীয় একাদশে এই তিন উইকেটকিপার একই সঙ্গে খেললেও ওয়ান ডে ক্রিকেটে প্রথমবার৷ বিশ্বকাপের ইতিহাসে তো প্রথমবার৷

চলতি বছরের শুরুতে নিউজিল্যান্ড সফরে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজে তিন উইকেটকিপারকে খেলিয়েছিল ভারত৷ কিন্তু ওয়ান ডে ফর্ম্যাটে প্রথমবার তিন উইকেটকিপার৷ ২০০৭-এ ক্যারিবিয়ান বিশ্বকাপের দলে থাকলেও খেলার সুযোগ হয়নি৷ তার পর ২০১১ ও ২০১৫ বিশ্বকাপের দলেই সুযোগ হয়নি কার্তিকের৷ কিন্তু শেষ পর্যন্ত মঙ্গলবার বিশ্বকাপ খেলার স্বপ্নপূরণ হয় কার্তিকের৷

অথচ ধোনির থেকেও আগে ওয়ান ডে অভিষেক হয়েছিল কার্তিকের৷ ৫ সেপ্টেম্বর, ২০০৪ লর্ডসে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ওয়ান ডে অভিষেক হয়েছিল কার্তিকের৷ আর ধোনির ওয়ান ডে অভিষেক হয়েছিল ২৩ ডিসেম্বর, ২০০৪ চট্টগ্রামে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে৷ ধোনির আগে দেশের হয়ে ওয়ান ডে অভিষেক হলেও মঙ্গলবারের আগে পর্যন্ত বিশ্বকাপ খেলার স্বপ্নপূরণ হয়নি ডিকে’র৷

তবে মঙ্গলবার বিশ্বকাপ অভিষেক মধুর হয়নি তামিল এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানের৷ এজবাস্টনে সাত নম্বরে ব্যাট করতে নেমে ৯ বলে মাত্র ৮ রান করে মুস্তাফিজুরের বলে আউট হয়ে ড্রেসিংরুমে ফেরেন কার্তিক৷ ১৭ মিনিট ক্রিজে থেকে একটি মাত্র বাউন্ডারি মারেন তিনি৷ এই ম্যাচের আগে পর্যন্ত দেশের হয়ে ৯১টি ওয়ান ডে খেলেছিলেন কার্তিক৷

চলতি আইপিএলে ভালো পারর্ফম করায় উইকটেকিপার হিসেবে পন্তকে পিছনে ফেলে ধোনির সঙ্গে দ্বিতীয় উইকেটেকিপার হিসেবে ইংল্যান্ডের বিমান ধরেন কার্তিক৷ কিন্তু শিখর ধাওয়ান চোট পেয়ে বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে যাওয়ায় দলে ঢোকেন পন্ত৷ শুধু তাই নয়, কার্তিকের থেকে আগে বিশ্বকাপে অভিষেক হয় পন্তের৷ বার্মিংহ্যামে আগে ম্যাচে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপ অভিষেক হয় দিল্লির এই উইকেটকিপার ব্যাটসম্যানের৷