আবুধাবি: ‘এটা ওর জন্য একটা খারাপ দিন।’ বুধবার মুম্বই ইন্ডিয়ান্স ম্যাচের পর সমালোচনায় বিদ্ধ আইপিএলের সবচেয়ে দামী বিদেশি ক্রিকেটারের পাশে দাঁড়িয়ে এমনটাই জানালেন দলের অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক।

গত ডিসেম্বরে আইপিএল নিলামে সাড়ে ১৫ কোটি টাকায় নাইট শিবিরে যোগদান করেছিলেন অজি তারকা পেসার প্যাট কামিন্স। আইসিসি টেস্ট এবং ওয়ান-ডে র‍্যাংকিংয়ে প্রথম সারিতে থাকলেও অজি পেসার টি২০ ফর্ম্যাটে মোটেই সাড়া-জাগানো কোনও নাম নন। স্বাভাবিকভাবেই বিপুল অর্থে তাঁকে দলে নেওয়ার কারণে ভ্রু কুঁচকেছিলেন অনেকে, সমালোচনাও কম হয়নি। বুধবার পারফরম্যান্স দিয়েই সমালোচকদের মুখ বন্ধ করে দেওয়ার সুযোগ ছিল কামিন্সের সামনে। কিন্তু বাস্তবে হল ঠিক উল্টোটা।

বল হাতে আইপিএলের ওপেনিং ম্যাচে ডাহা ফেল অতীতেও নাইটদের জার্সিতে খেলে যাওয়া এই অজি ফাস্ট বোলার। আইপিএল কামব্যাকে এদিন ৩ ওভারে ৪৯ রান খরচ করেন কামিন্স। সাড়ে ১৫ কোটির বোলারকে নিয়ে শেখ জায়েদ স্টেডিয়ামে কার্যত ছেলেখেলা করেন মুম্বই ব্যাটসম্যানরা। মুম্বই ইনিংসের পঞ্চম ওভারে তথা ব্যক্তিগত প্রথম ওভারে কামিন্স খরচ করেন ১৫ রান। প্রথম ওভারে তাঁর দু’টি ব্যাক অফ লেংথ ডেলিভারি স্ট্যান্ডে পাঠান রোহিত। এরপর ইনিংসের ১৫ এবং ১৭তম ওভারে অর্থাৎ অজি বোলারের ব্যক্তিগত দ্বিতীয় এবং তৃতীয় ওভারেও বদলায়নি চিত্রটা। পরের দুটি ওভারে যথাক্রমে ১৫ এবং ১৯ রান খরচ করেন কামিন্স। লিগের সবচেয়ে দামী বিদেশির বোলিং পারফরম্যান্স এদিন এতোটাই জঘন্য ছিল যে বরাদ্দ ৪ ওভার কামিন্সকে দিয়ে সম্পূর্ণই করাতে পারেননি নাইট অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক।

ব্যাট হাতে ১২ বলে ৩৩ রানের ‘ক্যামিও’ ইনিংস খেললেও অনুরাগীরা কিন্তু তাতে একেবারেই আশ্বস্ত হওয়ার নন। তাদের দাবি ব্যাটিং পারফরম্যান্সের জন্য নয়, বরং কামিন্সকে কারি-কারি টাকা খরচ করে আনা হয়েছে বোলিংয়ের কথা মাথায় রেখেই। তাই ম্যাচ শেষে রোহিতদের বিরুদ্ধে ৩ ওভারে ৪৯ রান খরচ করা অজি ফাস্ট বোলারের মুন্ডচ্ছেদ চলে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কিন্তু ম্যাচের পর কামিন্সের পাশে দাঁড়িয়েছেন নাইট অধিনায়ক দীনেশ কার্তিক। কার্তিকের কথায় প্রথম ম্যাচ দেখে কামিন্সকে দলে নেওয়ার যৌক্তিকতা নিয়ে প্রশ্ন তোলা উচিৎ নয়।

কার্তিক জানিয়েছেন, ‘ওকে একটা ম্যাচ দেখে বিচার করা উচিৎ নয়। ও সবে কোয়ারেন্টাইন মুক্ত হয়েছে। বিকেল ৩টে ৩০, ৪টে নাগাদ ও খেলার অনুমতি পেয়েছে। আমরা খুশি ওকে দলে পেয়ে। ও একজন চ্যাম্পিয়ন বোলার। সুতরাং, একটা ম্যাচের পর অন্তত ওকে এভাবে বিচার করা অনুচিৎ। ওর প্রতি আমাদের বিশ্বাস রয়েছে, ও ঠিক ফিরে আসবেই।’

উল্লেখ্য, মুম্বইয়ের ছুঁড়ে দেওয়া ১৯৬ রানের লক্ষ্যমাত্রা তাড়া করতে নেমে এদিন ২০ ওভারে ১৪৬ রানের বেশি তুলতে পারেনি কলকাতা নাইট রাইডার্স। অর্থাৎ, ৪৯ রানে ম্যাচ হেরে হতাশাজনক পারফরম্যান্স দিয়ে অভিযান শুরু হয় নাইটদের।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।