কলকাতা: আবারও বাংলা থেকে শাসক তৃণমূলকে হঠানোর ডাক বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের। বিজয়া দশমীতে অস্ত্র পুজো করেন দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, ‘সোনার বাংলা গড়তে রাজ্যবাসীর কাছে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বিজেপি। বাংলার গণতন্ত্র আজ বিপন্ন, রাজ্যের শাসকদলের দুর্নীতি ও অপশাসনে রাজ্যবাসী অতিষ্ট হয়ে উঠেছেন।’’

বিজয়া দশমীতে নয়া সংকল্প দিলীপ ঘোষের। আগামী বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্য থেকে তৃণমূলকে উৎখাতের ডাক বিজেপি রাজ্য সভাপতির। একুশের বিধানসভা ভোটের আগে সংগঠন চাঙ্গা করার কাজে মন দিয়েছে ডান-বাম সব দল। সেকাজে পিছিয়ে নেই বিজেপিও। জেলায়-জেলায় একাধিক কর্মসূবচির মাধ্যমে দলের সংগঠন মজবুত করার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছেন কর্মীরা।

সোমবার বিজয়া দশমীতে অস্ত্র পুজো করেন দিলীপ ঘোষ। তিনি বলেন, ‘‘শক্তির প্রতীক হল শস্ত্র। দেশ, ধর্ম রক্ষায় শস্ত্র জরুরি।’’ দলের রাজ্য সভাপতি পদের দায়িত্ব নিয়ে তিনি তাঁর সাধ্যমতো দলের অনুগত সৈনিকের ভূমিকা পালন করে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন।

সমষ্টিগত স্বার্থে মিলিত প্রচেষ্টায় কাজ করে চলেছেন বলে দাবি দিলীপ ঘোষের। রাজ্যে ২০১৯ সালের লোকসভা ভোটের মতো ভালো ফল করবে বিজেপি, আশাবাদী দিলীপ ঘোষ। এপ্রসঙ্গে তিনি বলন, ‘‘২০১৯ সালের লোকসভা ভোটে বাংলায় বিজেপি ৪০% ভোট পেয়েছে।’’

এরই পাশাপাশি রাজ্যের শাসকদল তৃণমূল কংগ্রেসকে তুলোধনা করেছেন দিলীপ ঘোষ। রাজ্যে বিজেপি কর্মীদের উপর তৃণমূলের মদতে পুলিশ অত্যাচার চালাচ্ছে বলে অভিযোগ দিলীপের। বিজেপি রাজ্য সভাপতি এপ্রসঙ্গে বলেন, ‘‘২০১৮ সালের পঞ্চায়েত ভোটে অত্যাচার চালায় তৃণমূল। খুন, ভোটে কারচুপি করে তৃণমূল। তা সত্ত্বেও বিজেপি ৬ হাজারেরও বেশি আসনে জিতেছিল।’’

আগামী বিধানসভা নির্বাচনে রাজ্যে ক্ষমতা দখলে মরিয়া বিজেপি। দলের রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষের দাবি, ‘‘রাজ্যবাসীর সমর্থন নিয়ে আগামী বিধানসভা নির্বাচনে জিতে বাংলার সরকার গড়বে বিজেপি।’’ রাজ্যের আইনশৃঙ্খলা ভেঙে পড়েছে বলে দাবি দিলীপ ঘোষের।

শাসকদল তৃণমূলকে বিঁধে তিনি বলেন, ‘‘বাংলার গণতন্ত্র আজ বিপন্ন, রাজ্যের শাসকদলের দুর্নীতি ও অপশাসনে রাজ্যবাসী অতিষ্ট হয়ে উঠেছেন।সোনার বাংলা গড়তে রাজ্যবাসীর কাছে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বিজেপি।’’

জেলবন্দি তথাকথিত অপরাধীদের আলোর জগতে ফিরিয়ে এনে নজির স্থাপন করেছেন। মুখোমুখি নৃত্যশিল্পী অলোকানন্দা রায়।