স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: কেন্দ্রের দোষ না দেখে রাজ্যের পরিকাঠামো গড়ে পরিস্থিতি মোকাবিলা করুন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে এমনই পরামর্শ দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

রাজ্যে করোনা মোকাবিলায় একাধিক পদক্ষেপ করেছে রাজ্য সরকার। ইতিমধ্যে ২০০ কোটি টাকার তহবিলও গঠন করেছে। সেই সঙ্গে গত কয়েক দিনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ধারাবাহিক ভাবেই কেন্দ্রের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ করেছেন। বলেছেন, “একটা গ্লাভসও আমাদের দেয়নি কেন্দ্র। সব নিজেদেরই কিনতে হয়েছে”।

মুখ্যমন্ত্রীর এই কথারই বিরোধিতা করলেন দিলীপ ঘোষ। বিজেপি রাজ্য সভাপতি বলেন, “রাজ্য সরকার বিভিন্ন সময়ে রাজ্যের বিভিন্ন ক্লাবকে আর্থিক অনুদান দিয়েছে। এখন দুর্দিনে সেই ক্লাবগুলো করোনা মোকাবিলায় এগিয়ে আসুক। অনুদানের টাকা মানুষের সেবায় ব্যবহার করা হোক।

পাশাপাশি, এদিন দিলীপ ঘোষ আরও বলেন, সিভিক ভলেন্টিয়াদের দিয়ে শুধু লাঠিচার্জ করে কিছু হবে না। রাজ্যের বহু ছেলেমেয়ে কর্মসূত্রে বা পড়াশোনার জন্য ভিন রাজ্যে বা বিদেশে রয়েছেন। ফলে বাড়িতে অনেকক্ষেত্রেই তাঁদের বৃদ্ধ বাবা-মা একা রয়েছেন। তাঁদের কাছে খাবার, ওষুধ সহ অত্যাবশ্যকীয় পণ্য পৌঁছে দেওয়ার কাজে সিভিক পুলিশদের ব্যবহার করা হোক। “

তবে বুধবার মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, “যে সমস্ত বৃদ্ধ-বৃদ্ধারা একা থাকেন, তাঁরা যদি খেতে না পান তাহলে প্রশাসনকে জানান।”

করোনা পরিস্থিতিতে কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বঞ্চনার অভিযোগ করায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সমালোচনা করেছেন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা আসানসোলের বিজেপি সাংসদ বাবুল সুপ্রিয়ও। মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে তিনি বলেছেন, এই মুহূর্তে অন্তত ‘ছোট রাজনীতি’ করবেন না। প্রমাণ দিয়ে তিনি বলেছেন, করোনাভাইরাসের টেস্ট-কিট বাংলায় পাঠানো থেকে শুরু করে গরিব মানুষের অ্যাকাউন্টে সরাসরি টাকা পৌঁছে দেওয়ার জন্য কী কী করেছে কেন্দ্রে নরেন্দ্র মোদী সরকার।