স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: সল্টলেকের ভাড়াবাড়ি ছেড়ে রাজারহাটের রাজকীয় ফ্ল্যাটে শিফট করলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। ছ’তলায় ওই ফ্ল্যাটে ১২ বেডরুম ছাড়াও একাধিক রান্নাঘর, খাবার ঘর এবং একটি বড় বৈঠক-কক্ষ আছে বলে জানা গিয়েছে।

রাজারহাটের নতুন ঠিকানায় দিলীপবাবু গিয়েছেন সোমবার। আবাসনটি জোতভীম এলাকায়। সূত্রের খবর, ওই আবাসনের নির্মাতা সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ী তথা নার্সিংহোমের মালিক নিজে ছ’তলার ওই ফ্ল্যাটটিতে থাকতেন। দিলীপের কথায়, “জীবনে এটা আমার পঁচিশ নম্বর বাড়ি, জীবন এভাবেই কেটেছে।”

দিলীপ বাবু আরও বলছেন ” এই সরকার আমার ওপর বারে বারে আক্রমণ করছে। তাই আমার দল মনে করেছে আমার আরও নিরাপত্তা দরকার। তারাই সে সবের সুপারিশ করেছে। তাই বেশি ঘরের দরকার হয়ে পড়ল। একজন এসে বললেন তাঁর বাড়ি ফাঁকা আছে। যেন আমি সেটা ব্যবহার করি। তাই উঠে এলাম।”

জানা গিয়েছে, এই ফ্ল্যাটে থাকার জন্য দিলীপ ঘোষকে এক টাকাও ভাড়া দিতে হবে না। বিজেপির রাজ্য সভাপতি হওয়ার পরে দিলীপ ঘোষ প্রথমে থাকতেন বেলেঘাটার সুভাষ সরোবরের কাছে কাদাপাড়ায়। সেখান থেকে নিউ টাউনের একটি ভাড়ার ফ্ল্যাটে। তার পর সল্টলেকে।

সেখানেও পরপর দু’বার ঠিকানা বদলান তিনি। সর্বশেষ তিনি সল্টলেকের যে ভাড়াবাড়িটিতে থাকতেন, সেটি সিএল ব্লকে। রাজ্যের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বুদ্ধদেব ভট্টাচার্য কিংবা বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যথেষ্টই সাধারণ জীবনযাপন করেন। সেখানে দিলীপ ঘোষের এই বিলাসবহুল ফ্ল্যাটে উঠে যাওয়ায় বিজেপি দলের মধ্যেই প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে।

অন্যদিকে, রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষের বাড়ি বদলের পরই আবাসনটির প্রোমোটারকে নোটিশ পাঠাল নিউ টাউন কলকাতা উন্নয়ন পর্ষদ। আজ, বৃহস্পতিবার আবাসনের নকশা এবং জমির কাগজপত্র নিয়ে দফতরের এক আধিকারিকের সঙ্গে তাঁকে দেখা করতে বলা হয়েছে।

সল্টলেকের ভাড়াবাড়ি ছেড়ে রাজারহাটের জোতভিম এলাকার অমনি তুলসী এপার্টমেন্টে উঠেছেন দিলীপ ঘোষ। তাঁর এই নতুন ঠিকানায় ১২টি বেডরুম ছাড়াও একাধিক রান্নাঘর, খাবার ঘর এবং একটি বড় বৈঠক-কক্ষ আছে বলে জানা গিয়েছে।

সূত্রের খবর, ওই আবাসনের নির্মাতা সংশ্লিষ্ট ব্যবসায়ী তথা নার্সিংহোমের মালিক নিজে ছ’তলার ওই ফ্ল্যাটটিতে থাকতেন। এখন সেখানে থাকবেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি।

দিলীপবাবু বলেন, ‘‘এক জন ব্যবসায়ী বিনা ভাড়ায় এই বাড়িতে থাকতে দিয়েছেন।’’ দিলীপ ঘোষ ওই বিলাসবহুল ফ্ল্যাটে ওঠার পরই সেখানে যান হিডকো কর্তারা। তাঁরা এপার্টমেন্টের প্ল্যানে কিছু ত্রুটির কথা উল্লেখ করেন। তবে নোটিশ সর্ম্পকে অবশ্য ওই ব্যবসায়ীর বক্তব্য জানা যায়নি।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ