স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: আমরা সরকার ফেলবও না, লিজও নেব না। বৃহস্পতিবার এই ভাষায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ। মুখ্যমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে তিনি বললেন, “মানুষ ভোট দিয়ে যখন ক্ষমতায় এনেছে তখন ৫ বছর আপনাকেই সরকার চালাতে হবে।”

বুধবার নবান্নে জেলাশাসকদের সঙ্গে ভিডিয়ো কনফারেন্সিংয়ের সময় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “আমি অমিত শাহকে বলেছিলাম, এত টিম পাঠাচ্ছেন পাঠান। আপনার যদি মনে হয় আমার সরকার পারছে না, আপনি নিজে দায়িত্ব নিন না। আপনি করোনাটাকে সামলান। আমার কোনও আপত্তি নেই”।

মুখ্যমন্ত্রী এও বলেন, “তবে হ্যাঁ, আমি তাঁকে থ্যাঙ্কস জানাচ্ছি। উনি এখানে প্রেজেন্ট নেই। তাও বলছি, উনি বলেছিলেন, না না তেমন তো কিছুই হয়নি। সরকার ভেঙে দেব কী করে?” সেই প্রসঙ্গেই মুখ্যমন্ত্রীকে এক হাত নেন বিজেপি সভাপতি।

তিনি বলেন, “এতদিন আপনি সরকারের মাধ্যমে জনগণকে শাসক করেননি, শোষণ করেছেন। রেশন লুঠ থেকে শুরু করে, জনধন থেকে শুরু করে গ্যাস,সব কিছু সরকারি খাজানার টাকা নিয়েছে আপনার ভাইরা। আজকে যখন বিপদে পড়ে গিয়েছেন তখন অন্য কেউ সহযোগিতা করবে? এটা হবে না। আপনাকেই ৫ বছর সামলাতে হবে। আমরা দেখতে চাই।”

তবে সেইসঙ্গে বিজেপির রাজ্য সভাপতি বলেন, “সরকার ভাঙা বিজেপির সংস্কৃতি নয়। তবে কোনও সরকার যদি ভেঙে পড়ে, তার দায়ও আমাদের নয়।” দিলীপ ঘোষের এই মন্তব্য যথেষ্ট ইঙ্গিতপূর্ণ বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। এদিন দিলীপ ঘোষ বলেন, “কেন্দ্রীয় সরকার সাহায্য করতে তৈরি। বারবার তা জানিয়েছে। যে দিন ঝড় এসেছে তার পর দিন মুখ্যমন্ত্রী কথার কথা বলেছিলেন প্রধানমন্ত্রীকে আসতে।

প্রধানমন্ত্রী এসেছেন, সঙ্গে নিয়ে ঘুরেছেন, হাতে এক হাজার কোটি টাকা দিয়ে গিয়েছেন। কিন্তু একবারও ধন্যবাদ জানালেন না তিনি। অথচ ওড়িশার মুখ্যমন্ত্রী ৫০০ কোটি টাকা পেয়ে টুইট করে প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানালেন।”

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।